ফেসবুকে বুস্ট করে ভাল ফল পাচ্ছেন না কেন?

প্রকাশিত
জোসস করেছেন

আমরা অনেকেই ফেসবুকে পণ্য ও সেবার বিজ্ঞাপণ দেই কিন্তু আশানুরূপ ফল পাই না। কিন্তু কেন? এর কারণ হল আপনার পণ্য ও সেবা ক্রেতাদের  চাহিদা সৃষ্টি করতে পারেনা অথবা সঠিক ক্রেতাদের মধ্যে আপনার পণ্য ও সেবা উপস্থাপন করা হয় না। আপনি যখন মার্কেটে যান কিছু কিনতে তখন বিভিন্ন দোকান ঘুরে ঘুরে যেটা আপনার পছন্দ হয় এবং আপনার ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকে তাই-ই কিনেন। তেমনি ভাবে ফেসবুকে কোন পণ্য ও সেবার বিজ্ঞাপণ দিতে গেলে সম্ভাব্য ক্রেতাদের কথা ভেবে চিন্তে বিজ্ঞাপণ দিতে হয়। তা না হলে আপনার টাকাটা পানিতে চলে যাবে।

এবার আমরা একটু জেনে নিই ফেসবুকে বিজ্ঞাপণ দিতে গেলে কি কি জিনিস আমরা খেয়াল করবো।

  • ১। পণ্য ও সেবাঃ আপনার পণ্য ও সেবাটি হতে হবে স্বতন্ত্র (Unique)। দামের সঙ্গে মানের মিল থাকতে হবে। অনেকেই নকল পণ্য ও কমন পণ্যের বিজ্ঞাপণ দেন। এই গুলো পণ্য ও সেবা ক্রেতাদের মধ্যে তেমন সাড়া ফেলে না। তাই ফেসবুকও গুরুত্ব কম দেয়। যার ফলে বিক্রি হয়না বা কম হয়।
  • ২। দামঃ পণ্য পছন্দ হলেও অনেক সময় দাম একটা ইস্যু হয়ে দাঁড়ায়। তাই পণ্যের মান অনুযায়ী দামটা সেট করুন। বেশি দামের কারণে পণ্যটি পছন্দ হলেও ক্রেতারা তা কিনতে চাইবে না।
  • ৩। ক্রেতা নির্বাচনঃ ফেসবুকে ক্রেতা বা অডিয়ান্স নির্বাচন করার সময় সঠিক ভাবে বয়স, লিঙ্গ, ডেমোগ্রাফি অর্থাৎ তাঁদের আচরণ, পছন্দ, লাইফ ইভেন্টস এই গুলো সেট করুন। যাদের ওয়েবসাইট আছে তারা পিক্সেল দিয়ে কাস্টম অডিয়ান্স সেট করুন। লুক-এ-লাইক অডিয়ান্সও সেট করতে পারেন।
  • ৪। স্থান নির্বাচনঃ আপনার ব্যবসাটা যদি হয় স্থানীয় অথবা কিছু নির্ধারিত এলাকার জন্য তা হলে অডিয়ান্স নির্বাচন করুন সেই ভাবেই। যদি মনে করেন সারা দেশেই আপনর পণ্য চলতে পারে তা হলে সারা দেশের জন্য অডিয়ান্স নির্বাচন করতে পারেন।
  • ৫। কন্টেন্টঃ ফেসবুকে বিজ্ঞাপণের বেলায় কন্টেন্ট বড় একটা ভূমিকা পালন করে। ক্রিয়েটিভ বা ডিজাইনটা আকর্ষণীয় করুন। প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফ খুব ভালো মানের হতে হবে। টেক্সট গুলো সুন্দর ভাবে লিখুন। বানান, গ্রামার এ সব যেন ভুল না হয় সেই দিকে খেয়াল রাখুন। ধরুন আপনি একটা শাটের বিজ্ঞাপণ দিবেন এই ক্ষেত্রে কেউ ভাঁজ করা শাটের ছবি দেয়, কেউ হয়তো পুরা শাটের ছবি আবার কেউ হয়তো মডেলসহ শাটের ছবি উপস্থাপন করেন। আমি বলব প্রথমটার চাইতে দ্বিতীয়টা এবং দ্বিতীয়টার চাইতে তৃতীয়টা ক্রেতাদের মাঝে বেশি আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপন করা হবে। তাই এই ধরনের ছবিতে বেশি ক্লিক পরে। বেশি ক্লিক মানেই বেশি এনগেজমেন্ট। আর বেশি বেশি রিচ। তাই বিক্রি হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে।
  • ৬। এনগেজমেন্ট বাড়ানঃ আপনার পণ্য ও সেবার ভালো ফল পেতে হলে এনগেজমেন্ট বাড়াতে হবে। এখন প্রশ্ন হল এই এনগেজমেন্ট জিনিসটা কি? বিজ্ঞাপণের জন্য যে পোস্টটা তৈরি করেছেন সেটা যদি বেশি লাইক, টিউমেন্ট, শেয়ার পায় তা হলে সেটার এনগেজমেন্ট বাড়বে। যখন কেউ লাইক, টিউমেন্ট, শেয়ার দেয় তখন ফেসবুক তার মিউচুয়াল বন্ধুদের কে সাজেস্ট করে। আর এই ভাবেই রিচ বাড়ে। পণ্য বিক্রির সম্ভাবনা তৈরি হয়।
  • ৭। অডিয়ান্স ন্যারো করুনঃ অনেকেই অডিয়ান্স অনেক বড় করেন। যারা আপনার পণ্য কিনবে না তাদের নিকট আপনার অ্যাড রিচ করে লাভ নেই। এতে করে খরচ বাড়বে কিন্তু আপনি কাঙ্ক্ষিত ফল পাবেন না। তাই ভাল ফল পেতে হলে বয়স, লিঙ্গ, স্থান এবং পছন্দসমূহ ছোট রাখুন।
  • ৮। এড ফরম্যাটঃ বিজ্ঞাপণের জন্য বার বার একই ফরম্যাট ব্যবহার করবেন না। মাঝে মাঝে ফরম্যাট বদল করুন। যেমন ভিডিও অ্যাড দিন, ক্যারোজাল অ্যাড ব্যবহার করুন ইত্যাদি।
  • ৯। রিভিউ দিনঃ আজকাল অনলাইনে পণ্য বিক্রির নামে নানা ধরনের প্রতারণা চলে। ক্রেতাদের নিকট  বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জন করতে হবে। তাই মাঝে মাজে পজিটিভ রিভিউ প্রকাশ করুন।
  • ১০। অ্যাড এর মেয়াদঃ অ্যাড এর মেয়াদ লম্বা করতে যাবেন না। লম্বা করলে অ্যাড এর পারফরমেন্স পরে যেতে পারে। ৭ দিনের বেশি কোন অ্যাড রান করতে যাবেন না।
  • ১১। নতুন কন্টেন্টঃ একই অ্যাড বার বার বুস্ট করতে যাবেন না। এতে করে নেগেতিভ ফিডব্যাক আসতে পারে যা অ্যাড এর পারফরমেন্স এর জন্য ক্ষতিকর। তাই সব সময়ই নতুন কন্টেন্ট ব্যবহার করুন। অন্যের কন্টেন্ট চুরি করে ব্যবহার করবেন না।
  • ১২। গবেষণা করুনঃ প্রতিটা প্রমোশন শেষ হবার পর তার ফল গুলো নিয়ে গবেষণা করুন। একটু ভাবুন। অ্যাড অ্যাকাউন্ট থেকে চার্ট দেখে অ্যাড এর পারফরমেন্স গুলো দেখুন। বয়স, লিঙ্গ, রিচ, প্রতি রেজাল্ট রেট, প্লেসমেন্ট ইত্যাদি নোট করুন। পরবর্তীতে অ্যাড দেবার সময় অডিয়ান্স গুলো ভেবে চিন্তে সেট করুন।

আপনি যদি গবেষণা করে এবং নিজের ব্রেইন কে খাটিয়ে সঠিকভাবে অডিয়ান্স বের করেত পারেন তা হলে আপনার অ্যাড ভাল পারফর্ম করবে। এতে করে খরচ কমবে। আপনি অধিক ভাল ফল পাবেন। আপনার পণ্য বিক্রি হবার বেশি সম্ভাবনা তৈরি হবে।

শেষে আরেকটি কথা বলি অনেকেই হয়তো বিভিন্ন ব্যক্তি বা এজেন্সির মাধ্যমে বুস্ট করান। এই ক্ষেত্রে একটু সাবধানতা অবলম্বন করবেন। অনেক বাটপার এবং অদক্ষ, অনভিজ্ঞ ব্যক্তি বুস্টের জন্য কম রেট অফার করে। তাদের ফাঁদে কখনই পা দিবেন না। এতে করে আপনার টাকাটা নষ্ট হবে। সেই সঙ্গে আপনার পেজ এর বড় রকমের ক্ষতি হতে পারে। তাই কাউকে বুস্ট করার জন্য নির্বাচন করার আগে তার প্রোফাইল ভালো করে দেখুন। তার অভিজ্ঞতা, দক্ষতা যাচাই বাছাই করুন।

Level 4

আমি আব্দুল্লাহ আল ফারুক। Digital Marketer, Self Employed, Bogura। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 34 টি টিউন ও 20 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 23 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস