মজার বই ব্ল্যাকহোলের বাচ্চা,এখনই ডাউনলোড করুন

'ব্ল্যাকহোলের বাচ্চা' শিশু-কিশোরদের জন্য লেখা বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী হলেও পড়তে ভালো লাগবে সবারই। ছোটদের কাছে বিজ্ঞানের কঠিন বিষয়গুলো মজার এবং সহজ করে কীভাবে উপস্থান করা যায়, তা এই বইটি থেকে শিক্ষণীয়।

বই : ব্ল্যাকহোলের বাচ্চা

লেখক : মুহম্মদ জাফর ইকবাল

প্রচ্ছদ : মুহম্মদ জাফর ইকবাল

প্রকাশনী : সময় প্রকাশক

প্রথম প্রকাশ : ফেব্রুয়ারি বইমেলা ২০১৩

বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী আপাতদৃষ্টিতে জটিল মনে হলেও কী করে তা উপভোগ্য করে তোলা যায়, তা আমাদের দেখিয়ে দিয়েছেন মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

মুহম্মদ জাফর ইকবাল বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীকে জনপ্রিয় করে তোলার আগে সাহিত্যের এই ধারায় পা বাড়াতে অনেকেই সাহস করতেন না। কিন্তু বর্তমানে লেখকদের মাঝে, বিশেষ তরুণ লেখকদের মাঝে এ বিষয়ে বেশ আগ্রহ দেখা যায়।

বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী আপাতদৃষ্টিতে জটিল মনে হলেও কী করে তা উপভোগ্য করে তোলা যায়, তা আমাদের দেখিয়ে দিয়েছেন মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

প্রচ্ছদ করেছেন লেখক নিজেই। তাই লিখিয়ে মুহম্মদ জাফর ইকবালের সাথে সাথে বইটিতে পাওয়া যাবে আঁকিয়ে মুহম্মদ জাফর ইকবালের দেখাও। প্রচ্ছদে হলুদ রঙের পটভূমিতে ব্ল্যাকহোলের বাচ্চা হাতে মিঠুনকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

গল্পের শুরু স্কুলবালক ইবুর মুখে, তার নিজের স্কুল এবং একই শহরের 'বড়লোক' স্কুল অক্সফোর্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের বর্ণনা দিয়ে। ইবু পড়ে হাজি মহব্বতজান উচ্চ বিদ্যালয়ে, যেটার নাম কিনা তার ভাষায় 'পাজি মহব্বতজান নিম্ন বিদ্যালয়' হওয়া উচিত ছিল! কারণ তার ধারণা এই স্কুলে 'উচ্চ' পর্যায়ের কিছু নেই। গল্প প্রসঙ্গে চলে আসে ইবুর সহপাঠী রূম্পা, বগা, ফারা, মৌসুমী, জুননুন, বাপ্পা আর রোল নম্বর তেতাল্লিশের কথা।

হঠাত্‍ একদিন ইবুদের ছোট শহরটায় একটা বড় ফিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণে উড়ে যায় 'বড়লোক' স্কুল অক্সবিজের কিছু অংশ। এই বিস্ফোরণের কারণ কী, তা রহস্যময়ই রয়ে গেল সবার কাছে। এর ঠিক দুদিন পর ইবুদের স্কুলে ভর্তি হলে 'অনেক পাওয়ারওয়ালা চশমা' পরা একটি ছেলে, যে কিনা ওই বড়লোকদের স্কুলে পড়ত। কেন মিঠুন নামের 'ছোটখাট বিজ্ঞানী' এই ছেলেটি ইবুদের স্কুলে এল, তা খোঁজ করতেই বেড়িয়ে পড়ে অক্সব্রিজ স্কুলে বিস্ফোরণের কারণ এবং রহস্যময় 'ব্ল্যাকহোলের বাচ্চা'।

এরপর ঘটতে থাকে একের পর এক ঘটনা। বইয়ের প্রতিটি পাতায় পাতায় অ্যাডভেঞ্চারের গন্ধ। ব্ল্যাকহোলের বাচ্চার জন্মকথা, তার বেড়ে ওঠার ঘটনা, বিজ্ঞানমেলা, ফ্লাইং মেশিন, কিডন্যাপিং এবং সবশেষে সবার বিখ্যাত হওয়া - একের পর এক সব ঘটে যায় গল্পের সাবলীল ধারায়। আর কী হলো শেষ পর্যন্ত ব্ল্যাকহোলের বাচ্চাটির? জানতে চাইলে পড়তে হবে 'ব্ল্যাকহোলের বাচ্চা'।

Level 0

আমি রণ তূর্য। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 27 টি টিউন ও 8 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস