ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

আমার প্রতিবাদ আর আপনাদের প্রতিক্রিয়া এবং আমার একটি প্রশ্ন

প্রথমেই মহান আল্লাহ তালার নিকট শুকরিয়া আদায় করছি যে তিনি ফেসবুক কর্তৃপক্ষের মোটা মাথায় কিছুটা হলেও শুভ বুদ্ধি দান করেছেন এবং এরপরে ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি যে তারা ইসলাম এবং মুসলমানদের জন্য উস্কানি মূলক পেজটি স্হায়ীভাবে বন্ধ করে দিয়েছেন এবং সেই সাথে আমার গত দুইটা টিউন যারা পড়েছেন এবং অনেক অনেক মূল্যবান ও মূল্যহীন (অশ্লীল ) কমেন্ট করেছেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি ।

thank1
এবার কাজের কোথায় আসি, আমার মনে হয় আমার গত দুইটা টিউন পাঠকদের মনে একটু বেশিই নাড়া দিয়েছে ।

ADs by Techtunes ADs
Please don't mind!! I'm trying to clear my vision about me and FACEBOOK also.
সম্মানিত পাঠকবৃন্দ আপনারা দয়া করে আমার আগের টিউন দুইটি আবার পড়ুন এবং দেখুন কোথায় এবং কোন পরিস্থিতিতে আমি আপনাদের ফেসবুক ছাড়ার পরামর্শ দিয়ে ছিলাম ।
যতটুকু মনে পরে আমি প্রথমে আইনগত ভাবে এর প্রতিবাদ করার কথা বলেছিলাম এবং কিভাবে তা করতে হয় তা আমার দিতীয় টিউনে ছবি সহ বর্ণনা করেছিলাম  আর যদি এতেও কাজ না হত তবেই আপনাদের সবাইকে ফেসবুক ছাড়ার কথা বলেছিলাম ।
কিন্তু ভাই আপনারা কি করলেন ? আমার প্রথম কথা না শুনেই দ্রুত আপনাদের ফেসবুক একাউন্ট বন্ধ করে দিলেন।
এবার আপনাদের কাছে আমার একটি প্রশ্ন, এখন যে ( on 21th May 2010, Friday) ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ওই পাগলা বাবার পাগলা পেজটা বন্ধ করে দিল এবং এর মাধ্যমে তাদের নিরপেক্ষতা এবং অন্য ধর্মের প্রতি কিছুটা হলেও সম্মান দেখানোর আভাস দিলো, তো এর পরিপ্রেক্ষিতে আপনারা এখন কি করবেন ?
আপনাদের কি করার আছে বলে মনে করেন ?
আপনাদের উত্তরের অপেক্ষায় রইলাম আমি ।
আল্লাহ হাফেজ ।
Thanks for your support

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি newboy। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 18 টি টিউন ও 818 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

প্রথমেই আমার সালাম নেবেন। আমার টিউন গুলো পড়ার জন্য আর TT এর সাথে থাকার জন্য পানাদের সবাইকে ধন্যবাদ। আপনাদেরকে উপদেশ দেয়ার কোনো যোগ্যতা আমার নাই। তাই আমার টিউনগুলোকে নিতান্তই পরামর্শ হিসেবে দেখবেন আশা করি। আমি পড়ালেখা শেষ করে এখন জীবন যুদ্ধে অংশ নেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি আর এর জন্য আপনাদের সবার...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

na vai ami mone kori ja kichu korbo বুঝে শুনে করব………অন্যে কি বল্ল কি করল তা দেখার টিম কই

Level 0

newboy ভাই,একমত LuckyFM ভাইয়ে সাথে সচেতনের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

এটা ফেসবুকের ব্যবসা। তাদের উচিত “ফেইসবুক পেজ” জিনিসটাই বন্ধ করে দেওয়া। কিন্তু তারা কখনো করবে না। কিংবা এমন কোন ফিল্টারও তারা যোগ করবে না, যেগুলো ইসলামকে অ্যাবিউজ করে করা হয়। এ জাতীয় ফিল্টার তারা সহজেই যোগ করতে পারে, তাহলে কেউ আর ঐ জাতীয় পেইজ তৈরী করতে পারবে না। কিন্তু এটা তাদের ব্যবসা। আমি ফেইসবুক ইউজের প্রথম থেকেই দেখে আসছি- ইসলাম বিদ্বেষী গ্রুপ, পেইজ তৈরী হচ্ছে। আবার সেগুলোর অ্যান্টি গ্রুপ তৈরী হচ্ছে। এতে কী লাভ হচ্ছে? এদের অ্যান্টি গ্রুপে আমরা মুসলমানরা লক্ষ জন জয়েন করলেও তো ইসলাম অবমাননা বন্ধ হচ্ছে না। বরং এটা তাদের ব্যবসা। আমরা যত ফেইসবুক ব্যবহার করব, তত তাদের উপার্জন হবে। একটানা সাতদিন আলেক্সা রাংকিং ডাউন হতে থাকুক, দেখবেন কেমন কান্নাকাটি শুরু করে দেয়।
উচিত জবাব হবে ফেইসবুক ছেড়ে দেওয়া। তারা ঐ পেইজ ডিলিট করুক আর না করুক।
নেটওয়ার্কিং সাইট ছাড়া আমরা মারা যাব না।
আর টুইটার, গুগল বাজ ও তো আছে!
let’s remember we are muslims. we are almost forgetting!

    Nur vai apnar sathe 100%akmot poson korsi…

    Level 0

    এক্কেবারে খাটি কথা কোনো সন্দেহ নাই ।
    আপনার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ ।

    “let’s remember we are muslims. we are almost forgetting!”
    আমি নুরে আলম ভাইয়ের সাথে সহমত পোষন করছি।

    নুরুল আলম ভাইয়ের সাথে একমত

নূরে আলম ভাইয়ের সাথে পুরো একমত। ধন্যবাদ।

যেহেতু ফেসবুক একটা সোস্যাল নেটওয়্যার্ক সাইট। তাই আমাদের বুঝে শুনে তা ত্যাগ করা উচিত। গুগল buzz বা এমন করবে না তার কোন নিশ্চয়তা আছে?

    না নেই এজন্য আমাদের সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।

    Level 0

    নিলদাত ভায়ের সাথে ১০০০০০০০০০০০০০০০০০০% একমতে আছি । আর নূর ভায়ের সাথে ১% দ্বিমতে আছে ।

কেউ কি মনে করেন ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ কোন নৈতিকতার দিক থেকে কিংবা ইসলামকে ভালবাসার কারনে ঔ বিতর্কিত পেইজটা বন্ধ করেছে?তা কিন্তু নয় তারা তাদের ব্যবসার কারনেই তা করেছে,বাংলাদেশ সহ বিশ্বের লক্ষ লক্ষ মুসলমান তাদের ফেইজবুক একাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে পাকিস্তানতো সরকারি ভাবেই ফেইজবুক বন্ধ করে দিয়েছে তাইতো ফেইজবুক কর্তৃপক্ষ এমন একটা ভাল কাজ করতে বাধ্য হলেন।কিন্তু একটা কথা মনে রাখবেন তারা অন্য কোন উপায়ে হলেও ইসলাম বিরোধী কর্মকান্ড চালিয়েই যাবেন এতে কোন ভুল হবেনা।আল্লাহ পবিত্র কোরানে বলেছন্”ইহুদী এবং কাফেররাই মুসলমানদের সবচেয়ে বড় শত্রু”এবং এই ফেইজ বুকটার মালিকও হলেন কিন্তু ইহুদী-কাফেররাই।পবিত্র কোরানে অন্য জায়গায় ইরশাদ হয়েছে”কাফের কাফেরের বন্ধু এবং মুসলমান মুসলমানের বন্ধু বা ভাই কাফের কোনদিনও মুসলমানের ভাই বা বন্ধু হতে পারেনা” তাই বলি ফেইজবুককে আপন ভাবার কোন কারন আছে বলে মনে করিনা।আরেকটা কথা বলি ফেইজবুককে বলাহয় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম আমি যদি এর উল্টটা বলি খুব একটা ভুল হবেকি?আমরা অনেক বার দেখেছি বিভিন্ন মিডিয়ায়,ফেইজবুকের কারনে অনেকের সুখের সংসার ভেঙ্গে গেছে,মাকে খুন করে মেয়ে পালিয়েছে ফেইজবুকের প্রেমিকের সাথে,আরো অনেক কথা এবং ইহাও শুনা যায় ফেইজবুকে নাকি নীল ছবির বিভিন্ন গ্রুপও আছে!অনেকে হইত বলবেন আমরা এই সব করিনা কিন্তু সামনে এসে গেলে মুখ ফিরিয়ে নেয় এমন মানুষ পাওয়া সত্যি দুষ্কর আর আল্লাহ স্পষ্ট ঘোষনা দিয়েছেন পবিত্র কোরানে”নিশ্চয় শয়তান মানুষের প্রকাশ্য শত্রু” আর আমরা মানুষ শয়তানের মোকাবেলায় অতিদুর্বল।অনেকে হয়ত বলবেন ফেইজবুকের কারনে অনেক পুরানো বন্ধুর সাথে যোগাযোগ হয়েছে কিংবা ফেইজবুকের কারনে অনেক উপকার হয়েছে,হতে পারে তবে সংখ্যার বিবেচনায় এটা কত পার্চেন্ট একটু ভেবে দেখবেন।তাই বলি আসুন আমরা ফেইজবুকের মতন এই রকম সাইট থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়ে নিজের ইমানকে আরো মজবুত করি এবং আখেরাতে আল্লাহর সামনে দাঁড়ানোর জন্য নিজেকে তৈরি করি।আল্লাহ আমাদের সবার সহায় হউন।
নূরে আলম ভাইয়ের সাথে আমিও একমত পোষন করছি,ধন্যবাদ সবাইকে।

কেউ কি মনে করেন ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ কোন নৈতিকতার দিক থেকে কিংবা ইসলামকে ভালবাসার কারনে ঔ বিতর্কিত পেইজটা বন্ধ করেছে?তা কিন্তু নয় তারা তাদের ব্যবসার কারনেই তা করেছে,বাংলাদেশ সহ বিশ্বের লক্ষ লক্ষ মুসলমান তাদের ফেইজবুক একাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে পাকিস্তানতো সরকারি ভাবেই ফেইজবুক বন্ধ করে দিয়েছে তাইতো ফেইজবুক কর্তৃপক্ষ এমন একটা ভাল কাজ করতে বাধ্য হলেন।কিন্তু একটা কথা মনে রাখবেন তারা অন্য কোন উপায়ে হলেও ইসলাম বিরোধী কর্মকান্ড চালিয়েই যাবেন এতে কোন ভুল হবেনা।আল্লাহ পবিত্র কোরানে বলেছন্”ইহুদী এবং কাফেররাই মুসলমানদের সবচেয়ে বড় শত্রু”এবং এই ফেইজ বুকটার মালিকও হলেন কিন্তু ইহুদী-কাফেররাই।পবিত্র কোরানে অন্য জায়গায় ইরশাদ হয়েছে”কাফের কাফেরের বন্ধু এবং মুসলমান মুসলমানের বন্ধু বা ভাই কাফের কোনদিনও মুসলমানের ভাই বা বন্ধু হতে পারেনা” তাই বলি ফেইজবুককে আপন ভাবার কোন কারন আছে বলে মনে করিনা।আরেকটা কথা বলি ফেইজবুককে বলাহয় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম আমি যদি এর উল্টটা বলি খুব একটা ভুল হবেকি?আমরা অনেক বার দেখেছি বিভিন্ন মিডিয়ায়,ফেইজবুকের কারনে অনেকের সুখের সংসার ভেঙ্গে গেছে,মাকে খুন করে মেয়ে পালিয়েছে ফেইজবুকের প্রেমিকের সাথে,আরো অনেক কথা এবং ইহাও শুনা যায় ফেইজবুকে নাকি নীল ছবির বিভিন্ন গ্রুপও আছে!অনেকে হইত বলবেন আমরা এই সব করিনা কিন্তু সামনে এসে গেলে মুখ ফিরিয়ে নেয় এমন মানুষ পাওয়া সত্যি দুষ্কর আর আল্লাহ স্পষ্ট ঘোষনা দিয়েছেন পবিত্র কোরানে”নিশ্চয় শয়তান মানুষের প্রকাশ্য শত্রু” আর আমরা মানুষ শয়তানের মোকাবেলায় অতিদুর্বল।অনেকে হয়ত বলবেন ফেইজবুকের কারনে অনেক পুরানো বন্ধুর সাথে যোগাযোগ হয়েছে কিংবা ফেইজবুকের কারনে অনেক উপকার হয়েছে,হতে পারে তবে সংখ্যার বিবেচনায় এটা কত পার্চেন্ট একটু ভেবে দেখবেন।তাই বলি আসুন আমরা ফেইজবুকের মতন এই রকম সাইট থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়ে নিজের ইমানকে আরো মজবুত করি এবং আখেরাতে আল্লাহর সামনে দাঁড়ানোর জন্য নিজেকে তৈরি করি।আল্লাহ আমাদের সবার সহায় হউন।
নূরে আলম ভাইয়ের সাথে আমিও অনেকটা একমত পোষন করছি,ধন্যবাদ সবাইকে।

    @আতাউর রহমান ভাই এদানিং আপনি যে মন্তব্য গুলা করছেন এটা টিউন আকারে প্রকাশ করার মত । হা হা হা 😉

    লজ্জা দিলেন ভাই টিউন করার যোগ্যতা নাই বিধায় টিউন করতে পারিনা,আমি মনে হয় বুঝতে পারছি আমার কমেন্ট গুলু একটু বারাবারি হয়ে যাচ্ছে আসলে ধর্মীয় অনুভুতি সংক্রান্ত কোন কমেন্ট হলে একটু বেশী বলে ফেলি ইহা সত্যি,ঠিক আছে আর কমেন্ট করব না।তারপরও যেন কেউ মনে কোন কষ্ট না রাখে।

    ***** কাফের কাফেরের বন্ধু এবং মুসলমান মুসলমানের বন্ধু বা ভাই কাফের কোনদিনও মুসলমানের ভাই বা বন্ধু হতে পারেনা*******

    vai apnake gorami’r jonno noble prize dewa uchit.

    ভাই দুঃখের সাথে জানাচ্ছি এই গোরামিটা আমার না আমি পবিত্র কোরানের একটা আয়াত থেকে উদৃত করেছিলাম কমেন্টা ভাল করে আরেক বার দেখলে বুঝতে পারবেন তাই আপনার কথা মত নোভেল প্রাইজটা আমার না মনে মহান আল্লাহ তায়ালার প্রাপ্য আর আল্লাহ তায়ালা মনে হয় আপনাদের নোভেল প্রাইজের মুখাপেক্ষি নন,আল্লাহ আমাদের সবাইকে ক্ষমা করুন।

    ভাই দুঃখের সাথে জানাচ্ছি এই গোরামিটা আমার না আমি পবিত্র কোরানের একটা আয়াত থেকে উদৃত করেছিলাম কমেন্টা ভাল করে আরেক বার দেখলে বুঝতে পারবেন তাই আপনার কথা মত নোভেল প্রাইজটা আমার না মনে হয় মহান আল্লাহ তায়ালার প্রাপ্য আর আল্লাহ তায়ালা মনে হয় আপনাদের নোভেল প্রাইজের মুখাপেক্ষি নন,আল্লাহ আমাদের সবাইকে ক্ষমা করুন।

বাংলা ব্লগিঙ এর সাথে আমার পরিচয় বেশ আগে থেকে, টেকটিউনস সাইটটা তৈরীর আগে থেকে। এই সাইটটা তৈরীর প্রথম থেকেই আমি এটা ভিজিট করতাম, তখন কোন কমেন্ট-ই আসত না! তারপর এই সাইটটা এতদূর এসেছে। আমি আশা করি, অন্যান্য বাংলা ব্লগ সাইটগুলোর মত টেকটিউনসে ব্যক্তিগত আক্রমণ করা হবে না।
লিটলবয়, আপনার জ্ঞাতার্থে বলছি- কোন সূরার কোন আয়াত, তা আমার মনে নেই। তবে আল্লাহ পরিষ্কারভাবে বলে দিয়েছেন বিধর্মীকে ওলি (বন্ধু) হিসেবে গ্রহণ না করতে।
যাই হোক, এটা টেক ব্লগ। এখানে রিলিজিয়াস ব্যাপারে ডিসকাশান বেশিদূর আগানো ঠিক হবে না।

নীলদাত ভাই, বিষয়টা খুব গভীরভাবে চিন্তা করতে হয় না। ফেসবুকের “পেইজ” কিঙবা “গ্রুপ” জিনিসটা কিন্তু গুগল বাজ- এ নেই। টুইটারেও এই টাইপ জিনিস নেই। পেইজ কিঙবা গ্রুপ এর সাজেশান আমাদের ফেইসবুকে আসে, এক ইউজার থেকে আরেক ইউজারে ছড়িয়ে পরে।
কিন্তু টুইটারে আপনি কাকে ফলো করবেন, সেটা আপনার ব্যাপার। টুইটারে এজাতীয় কোন পাবলিক পেইজ, যেখানে একইসাথে ছবি, ভিডিও, ডিসকাশান, স্ট্যাটাস আপডেট দেওয়া যায় তা নেই।
গুগল বাজও কিন্তু সিমিলার। আপনি সহজভাবে একটু চিন্তা করে দেখুন তো, ফেসবুকে যে প্রবলেম গুলো হচ্ছে, একজন জিমেইল বা ইয়াহু মেইল ইউজারের কি একই সমস্যা হতে পারে? উত্তর হল না। কারণ মেইল আর ফেসবুকের ইন্টারফেস এক না। অপশনও এক না।

    সুরা আল-মায়েদাহ ৫১ নং আয়াত এবং অন্য জায়গায়ও আছে।

*** তবে আল্লাহ পরিষ্কারভাবে বলে দিয়েছেন বিধর্মীকে ওলি (বন্ধু) হিসেবে গ্রহণ না করতে।****

ta vai ai j christ’der computer/internet/biman/unnoto chikitsha/mobile airokom lakho-koti jinis use kortechen r mukhe boltechen oder bondu hisebe na nite? bah valo. thats why u r the group hated by the hole world.

How selfish talking .. huh

ora ka akta jinis abishkar kare r tarpor apnara busy hoye jan ata quran a kothay lekha ache ta ber korar jonno….. rubbish

    Level 0

    জনাব লিটলবয়,
    আপনার কমেন্ট গুলো সমস্ত মুসলিম জাতিকে কটাক্ষ করার মত মনে হচ্ছে । আপনি যে বিধর্মীদের এত তোষামোদী করেন, তো তাদের কাছ থেকে কোনো কমিশন পান নাকি, না আপনি তাদের লোকাল এজেন্ট কোনটা ?
    অনুগ্রহ করে এই ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকেন। আপনার কোনই অধিকার নেই কোরআনের আয়াতসমূহের ব্যাপারে কোনো কটুক্তি করার চাই আপনি যেই ধর্মের হউন না কেন ।
    আপনি যদি মুসলিম হয়ে থাকেন তবে আপনার উচিত কুরআনের আয়াতসমূহকে অস্য়িকার না করা, চাই আপনি সেগুলোকে মানুন আর নাই মানুন ।
    আর যদি অমুসলিম হয়ে থাকেন তাহলে এই ধরনের আপনার অবগতির জন্য বলছি যে এই ধরনের কোনো উস্কানিমূলক কমেন্ট (কটুক্তি ) করার কোনো অধিকার আপনার নেই ।
    তা আপনার পুরো নামটা কি জানতে পারি, (যদি সত্য বলার সাহস থাকে) ? আর techtune আপনার কোনো পোস্ট আছে নাকি ? নাকি শুধু কমেন্ট (কটুক্তি ) করার জন্যই techtune যোগ দিয়েছেন ?

    Level 0

    জনাব লিটলবয়,

    “christ’der computer/internet/biman/unnoto chikitsha/mobile airokom lakho-koti jinis use kortechen ”

    জি হা আমরা (মুসলমানরা ) use করছি তবে, উপযুক্ত মুল্য দিয়ে, বিনা মূল্যে নয় ।

    ভাইরে…. এই বন্ধুত্বর…. একটা ডেফিনেশন আছে। বন্ধুর সাথে যেভাবে একাত্ব হওয়া যায় “সেইফটি” চিন্তা করতে হয় না। সেইভাবে একাত্ব হবার ব্যাপারে সতর্ক করা হয়েছে কুরআনে। ভাই-বন্ধু যেমন আপনার ক্ষতির চিন্তা করবে না… তেমন ভাই-বন্ধু তারা নয়। আপনার সিআইএর বিভিন্ন সেল এর কার্যক্রম দেখতে পারেন।
    তাদের সাথে যোগাযোগ-ব্যবসা কেন হবেনা?????? রাসুল (স:)ও তো ব্যবসা-শিক্ষা ইত্যাদির অনুমতি দিয়েছেন। আর বিদ্বেষওতো করতে নিষেধ করেছেন। মুসলীম রাষ্ট্রে তাদের উপযুক্ত সম্মান দিতে বলেছেন। কিন্তু তারা এপর্যন্ত তারা মুসলমানদের কম ক্ষতি করেনি। স্পাই দিয়ে, বেইমান কিনে অনেক ক্ষতি করেছে। আসলে তাদের সাথে সেইফটি প্যারামিটার (ফায়ারওয়াল) অর্থাত চোখ-কান খোলা রেখে সমস্ত কার্যক্রম চালানো ইসলামে বৈধ।
    লিটলবয় ভাই আপনি একটু ভুল বুঝেছেন। আপনি যদি অন্যধর্মী হন। তবে আমরা দুঃখিত। আমরা সেলফিস নই। *** একটা কথা হলো আমাদের কুরআন আর নবীর হাদিস কি বলেছে….. আর আমাদের মানুষগুলো কি করে। আইন আছে। তা যদি না মানে তাহলে আইনের দোষ না। কুরআন হাদিস একজন একভাবে বুঝলে কুরআনের দোষতো নয়। দোষ বুঝার। বাংলাভাইও তো বোমা মেরে ৯০-৯৫% মুসলমানের দেশে ইসলাম কায়েমের ভুয়া ধুয়া তুলেছিল। নিজের সাপেক্ষে কুরআন-হাদিস এর অপব্যাখ্যা জোগাড় করেছিল। তা কি ঠিক।

    ** দয়া করে কেউ ইসলামকে হেয় করবেন না। মুসলমান ভাইদের বলছি….. নবী (সঃ) বলেছেন… অন্য ধর্মের প্রতি গালী দিও না। কারন অন্যজন তাহলে তোমার ধর্মকেও গালী দিবে। তাই লিটলবয় টাইপের কমেন্টারদের কড়া কথা শুনানোটা মনে হয় ভুল (হয়তোবা)…. << এটা নিউবয়কে বলছি।
    *** আতাউর রহমান ভাই মাইন্ড কইরেন না……………………….. আয়াত এর সরল বাংলা বললেন। আপনার উচিত ছিল তাফসির দেখে ব্যাখ্যা দেওয়া। অবুজরা না বুঝে ইসলামকে ভুল বুঝবে।

    *** আর আমরা ফেইসবুক না ব্যবহার করলে মনে হয় ফেইস বুকের কিছুই হবে না। আমার মতে মুসলমান হ্যাকাররা একত্র হয়ে যুদ্ধ ঘোষনা করা উচিৎ।

লিটলবয়, আপনি এভাবে আক্রমণাত্মক ভাষায় কথা বলছেন কেন? বিধর্মীদের সাথে ব্যবসায়িক চুক্তিতে কোন বাধা নেই, কিন্তু আল্লাহ নিষেধ করেছেন তাদের বন্ধু হিসেবে গ্রহণ না করতে। এটা আমার কথা নয়। আল্লাহর কথা।

Level 0

আমি দীর্ঘদিন সেৌদি আরব আছি। এখানে একজন বাঙালী মুসলমানের বন্ধু কিন্তু আরেক বাঙালী হিন্দু বা খৃস্টান (বিধর্মী), কোনভাবেই একজন মুসলমান সেৌদী বা মুসলমান মাশরি (মিশরীয়) নয়। আরবরা বাঙালীদের ‘মিসকিন’ হিসেবে দেখে, বন্ধু হিসেবে নয়- তা সে বিধর্মী হোক বা মুসলিমই হোক।

এটা ওদের নিজস্ব গোড়ামী/নিম্ন মানসিকতা/খাসলত…….. ওরা আরব হিসেবে গর্ব করে……. খুব ক্ষতিকর পর্যয়ের। যা রাসুল(স.) শিক্ষার পরিপস্থি।