পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুততম পশু

মানুষ স্বভাবতই সবচেয়ে দ্রুত গতির জিনিষটিই পছন্দ করে। যেমন, আমরা যানবাহন, কম্পিউটার বা ইন্টারনেট সংযোগ হিসেবে প্রতিক্ষেত্রে সবচেয়ে দ্রুতগতির জিনিষটিই বেছে নিই। প্রাণীজগতের ক্ষেত্রেও কিন্তু এর ব্যতিক্রম নয়।

হয়তোবা সময়-বিশেষে আপনার বিস্ময়ের কারণ হতে পারে একটি প্রশ্ন। প্রাণীজগতে সেরা গতির অর্থ কি? কি সুবিধা এই দ্রুততম গতির অধিকারী হয়ে? বেশিরভাগ সময়, শিকার হল সেরা গতির মূল অর্জন। কিন্তু সকল ক্ষেত্রে তা নয়। আজ আমরা কথা বলবো সে সকল ১০ টি দ্রুততম প্রাণীদের নিয়ে যারা তাদের গতির মাধ্যমে বিশ্ব মাতিয়ে রেখেছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

৫. ব্লাকবাক (Blackbuck):

এর সাথে আমরা বেশিরভাগই অপরিচিত। এটি মূলত দেখতে অনেকটা হরিণ এর মতো। এই সুদর্শন লম্বা শিং-যুক্ত প্রাণীদের ভারত, পাকিস্তান এবং নেপাল পাওয়া যায়। এরা লাফিয়ে চলাচল করে থাকে এবং অন্যসকল লাফিয়ে চলাচল করা প্রাণীদের মধ্যে এদের গতি অনেক বেশি। প্রতি ঘণ্টায় এরা ৮০ কিলোমিটার বেগে লাফিয়ে যেতে পারে। এদের জীবদ্দশায় এরা সাধারণত ১০ থেকে ১৫ বছর বেচে থাকে।

৪. নু-হরিণ (Wildebeest):

নু-হরিণ তাদের নতুন চারণভূমিতে বার্ষিক স্থানান্তরের জন্য পরিচিত। এদের বসবাস টাজানিয়া জঙ্গলে। প্রতিবছর বিপুল পরিমাণ নু-হরিণ একসাথে নদী পারাপার করে তাদের নতুন চারণভূমিতে যায়, বিভিন্ন বন্যপ্রাণী সম্পর্কিত তথ্যচিত্রে এই ঘটনাটি প্রচার করা হয়। এরা সর্ব্বোচ ৮০.৫ কিলোমিটার বেগে দৌড়াতে পারে। এদের এই ছুটতে পারার ক্ষমতাই কিন্তু বিভিন্ন প্রাণীর হাত থেকে এদেরকে রক্ষা করে। কারণ বাঘ এবং সিংহ আবার ওয়াইল্ড বিস্ট খেতে দারুণ পছন্দ করে।

৩. প্রোঙ্গহর্ন (Pronghorn):

বিশ্বে ভূমিস্ত স্তন্যপায়ী প্রাণীদের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুততম হল প্রোঙ্গহর্ন। এরা অনেক দ্রুত গতির হওয়ার ফলে শিকার এর ক্ষেত্রে অনেক প্রাণীকেই ছল করে ফেলতে পারে যা এদের শিকারে সাহায্য করে। বড় হার্ট এবং ফুসফুসের কারণে তাদের দম থাকে বেশি। এ কারণেই অন্যান্য প্রাণীদের থেকে বেশি সময় এরা তাদের এই বেগ ধরে রাখতে পারে। এই হরিণগুলো লাফ দেবার ব্যাপারে বেশ কাচা। ঠিক মতো লাফ দিতে পারে না এরা। এই সুদর্শন শিং যুক্ত প্রাণী প্রতি ঘণ্টায় ৮৮.৫ কিলোমিটার বেগে দৌড়াতে পারে।

২. স্প্রিংবক (Springbok):

স্প্রিংবক এক ধরনের মাঝারি আকৃতির, বাদামী এবং সাদা বর্ণ-মিশ্রিত হরিণ। দক্ষিণপূর্ব আফ্রিকায় এদের দেখা যায়। লম্বা শিং ও সুদর্শন রূপের এই প্রজাতি অনেক দ্রুত গতির অধিকারী। প্রতি ঘণ্টায় এরা ১০০ কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করতে সক্ষম। এছাড়াও, এরা বাতাসে ৪ মিটার লাফ দিয়ে ১৫ মিটার পর্যন্ত একটি অনুভূমিক দূরত্ব বজায় রাখতে পারে।

১. চিতাবাঘ (Cheetah):

যদি আপনাকে জিজ্ঞেস করা হয়, বিশ্বে সকল ভূমিস্থ প্রানীদের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুততম কে? সর্বপ্রথম যে প্রানীটির নাম আপনার মাথায় আশাকরি তখন গাড়িটি ধীরে ধীরে বেগ প্রাপ্ত হয়, কিন্তু চিতাবাঘ ৩ সেকেন্ড এর মধ্যে ১১৫ কিলোমিটার বেগে দৌডাতে শুরু করে অর্থাৎ তাৎক্ষনিক বেগপ্রাপ্ত হয়। চিতাবাঘ দ্রুত বেগে দৌড়াতে পারে তাই শিকারে sশিকারে অনেক সুনাম কুড়িয়েছে।

Level 0

আমি মার্স টেক। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 35 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 4 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস