বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রি, বেসিস এর সভাপতি সহ দেশের উচ্চস্তরে যারা আছেন সবার দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

আমি একজন ফ্রিল্যান্সার। আমি আমার গ্রামে বসে আপওয়ার্ক এ কাজ করি। আমি প্রতি ঘন্টায় ৩ইউএস ডলার আয় করি। আমি বেশীরভাগ সময় গ্রামীন ফোনের ইন্টারনেট ব্যবহার করি। যাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে লেখাটা লিখছি তাদের কাছে আমার জিজ্ঞাসা আমার ঘন্টা প্রতি আয় কি একেবারেই নগন্য? গ্রামীন সহ অন্য মোবাইল অপারেটর যে ৩জি ইন্টারনেট দিচ্ছে তাদের গতি যদি হয় ১ এমবিবিএস অর্থাত প্রতি সেকেন্ড এ ১ মেগাবাইট ডাটা। তাহলে ১মিনিট=৬০সেকেন্ড এ ব্যবহার হয় ৬০ এম.বি। তাহলে ১০২৪মেগাবাইট ডাটা খরচ করতে কত সময় লাগবে? হিসাবটা এরকম দাড়ায় প্রতি ঘন্টায় ৬০ গুন ৬০ = ৩৬০০ মেগাবাইট যার বর্তমান সর্বনিম্ন দাম ৭০০টাকা (১৮% ভ্যাট ছাড়া) আমার প্রতি ঘন্টায় আয় ৩ ইউএস ডলার যা বাংলাদেশের হিসাবে ৩ গুন ৭৫টাকা = অর্থাত ২২৫টাকা তাহলে বাচলো কতো ? আমি আয় করি ঘন্টায় ২২৫টাকা আর গ্রামীন কে দিতে হয় ৭০০টাকা। আমি যাদের দৃষ্টি আকর্ষন করছি তারা নিশ্চয় বলবেন যে, সব সময় তো আর একই স্পিডে ডাটা ব্যবহার হয় না। তা হয় না কিন্তু সব সময় তো আর কাজও করা যায় না। কখনো নতুন কাজ খুজতে হয়, কখনো সংবাদ পত্র দেখতে হয়, কখনো বা ইউটিউব এর টিউটোরিয়াল ভিডিও দেখতে হয়। সবাই যেখানে ফ্রিল্যান্সিং করো, দেশের বেকার সমস্যা মিটাও এতো সুন্দর সুন্দর কথা বলেন, তখন শুনতে ভালই লাগে। ভালই লাগে যখন পড়ি সরকারের কোন প্রজেক্ট এর মাধ্যমে দেশে অনেক ফ্রিল্যান্সার তৈরী হচ্ছে। কিন্তু আসল চেহারাটা আমি আমার বাস্তব জীবনে উপলদ্ভি করছি। আমি জানি আমার এই লেখায় উনাদের টনক নড়বে না। আমি এও জানি মোবাইল কোম্পানী গুলোও তাদের ডাটার মুল্য কবাবে না। কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রী, যিনি স্বপ্ন দেখেন এই দেশটাকে একসময় ডিজিটাল দেশ হিসেবে গড়ে তুলবেন। যিনি আমাদের বঙ্গবন্ধুর কন্যা। তাকে আমার প্রশ্ন- আমার আয়ের সব টাকা যদি ইন্টারনেটের পিছনে খরচ করি তাহলে আমার পরিবার চলবে কি করে? আমি শুধু তার কাছে যানতে চাইবো আমি কি তাহলে এই কাজ ছেড়ে দিব? আমি জানি আমার প্রশ্নের উ্ত্তর কেউ দিবে না?

Level 0

আমি dhruba। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 12 টি টিউন ও 63 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

valo bolesen vay

[email protected]
আপনি আপনার কষ্টের কথা জানিয়েছেন। কিন্তু কোন লাভ নেই।কারণ কোম্পানীগুলোর কাছ থেকে সরকার উচ্চহারে লাইসেন্স ফি নিয়েছে।বাংলদেশ বলে কথা, তেলের দাম ১০ পয়সা বৃদ্ধি পেলে বাস ভাড়া ৫-১০ টাকা বাড়ে। আর আপনি যাদেরকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, তাঁদের এসব শোনার সময় নাই।

কিছু বলার ভাষা নেই। ১০ টাকা ১GB ডাটা দিলে ২ দিন তা Use না করলে ডাটা নিজের নামে নিয়ে চলে যায়! এই হল Offer.

ভাই দুক্ষের কথা কাকে বলব সরকার নিজের চিন্তা করে। ইউনিওয়ন অফিস পর্যন্ত নেট দিয়া বলে সারাদেশে নেট দিয়া দিসে আহা এমন ভাগ্য বাংালিদের হবে না আর বলে দেশের সব কাজ হবে অনলাইন এ আরে সেই অনলাইন এ ত বাংগাদেশে নাই। আপনার ত তাও ৩ জি আছে আর আমদের ১.৫ জি।

ভাই দুঃখের কথা আর কইয়েন না।
পাকিস্তানে ৭ জিবি ইন্টারনেট, বাংলাদেশের প্রায় ৮ টাকা।
আর আমাদের দেশে ১ জিবি ইন্টারনেট মাত্র ৩২০ টাকা।
তাছাড়া উন্নত রাষ্ট্রে ইন্টারনেট তথা ওয়াইফাই একদম ফ্রি।
আর আমরা ৩ জি নিয়া চাপা মারি, অথচ ১ জি এরও খবর নাই।

apnar dukkher kotha era keu sunbe na r sunle o tader kichu jay ashena.
bonghobondhur desh to tai ai rokom aktu adtu koshto to korte hobe ki bolen? Akhon hok r amader morar por hok desh akdin digital hobei. R thokon name ta bangladesh theke bongodesh o hote pare– bujlen..

3-G নেটওয়ার্কে এই সম্যসাটা আমারও ছিলো, 2-G তে ক্রোম ব্যবহার করে দৈনিক 15 ঘন্টায় আমার 200 mB এর বেশি বা কম ডাটা ইউস করতাম, আর 3-G তে একই সময়ে আমার প্রায় 500 mb বা তারও বেশি ডাটা ইউস হতো।

এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য অনেক নেট ঘেটেছি, কয়েকটা সফটয়্যারও ব্যবহার করেছি অবশেষে নিজের সম্যসার সমাধানটা নিজেকেই বের করতে হয়েছিলো

এই সম্যসার জন্য এখন যেটা করি মডেমের আমারটা জিপি মডেম এটার Tools অপশনের Network সেটিং থেকে Mode preference অপশন থেকে একদম নিচে GPRS/EDGE Only সিলেক্ট করে দেই

অথাৎ যখন 2-G ব্যবহার করার দরকার হয় তখন GPRS/EDGE Only সিলেক্ট করে দেই

আর যখন 3-G ব্যবহার করার দরকার হয় তখন একই লিস্টের একদম উপরের Automatic সিলেক্ট করে দেই।

আপনিও এই পদ্দতি ব্যবহার করে এই সম্যসা থেকে পরিত্রান পেতে পারেন। আপনার মডেম থেকে 3-G ব্যবহার করার সময় 3-G সিলেক্ট করে দিবেন আর 2-G ব্যবহার করার সময় 2-G সিলেক্ট করে দিবেন।

লাভ নাইরে ভাই । আপনার হিসেব মতে ৫ টাকায় ১ জিবি দিতে হবে !

Level 0

কমেন্ট করার জন্য সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ। আমাদের কথাগুলোর সারমর্ম যা দাড়ায় তা হলো—-
গত হয়ে যাওয়া সরকার কে কতটুকু করেছিল, আর বর্তমান সরকার কতটুকু উন্নয়ন করেছে- এই ভাবনাগুলো বাদ দিয়ে আমরা সবাই চেয়ে আছি আমাদের বঙ্গবন্ধূ কণ্যা শেখ হাসিনা আর তার যোগ্য উ্ত্তরসূরীর দিকে কারন একমাত্র এবং এই প্রথম কোন সরকার দেশটাকে ডিজিটাল করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। সব কিছুর জন্য অবশ্যই সময় আর সুযোগ দরকার। আমরা যারা ইন্টারনেট নিয়ে কাজ করছি তারা সবাই এক বাক্যে স্বীকার করি যে, আমাদের প্রধানমন্ত্রী যদি এই ইন্টারনেটের ডাটার দাম কমানোর উদ্দ্যোগ নেন তাহলে মাত্র ১ মাসের ভিতরই কমে যেতে পারে এই ডাটার দাম। সেই সাথে যারা প্রকৃতই ফ্রিল্যান্সিং করে দেশের রিজার্ভ বাড়াচ্ছেন তাদেরকে টিকিয়ে রাখার স্বার্থে- অতি স্বত্বর ফ্রিল্যান্সার বাড়ানোর মতো টাকা হাতানোর প্রজেক্টকে বন্ধ করে, সেই টাকা দিয়ে যারা আসলেই ফ্রিল্যান্সার তাদের টিকিয়ে রাখার প্রজেক্ট হাতে নিন। তা না হলে ফ্রিল্যান্সার থাকবে সরকারী হিসাবে, বাস্তবে থাকবে কি না জানি না। আর একটা কথা শুধু ঢাকা আর চিটাগং মানে বাংলাদেশ নয়- এই চিরন্তন সত্য কথাটা সরকার সহ সকল ইন্টারনেট প্রভাইডারের স্মরণ রাখা উচিত বলে আমরা মনে করি।