ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর প্রতারনা, ২০১০-১১ সেশনের অনার্স ১ম বর্ষের ছাত্রছাত্রীরা অবশ্যই দেখুন।

আমার মত গরিব ঘরের সন্তানরা প্রাইভেট ভার্সিটি তে পড়তে পারিনা। তাই ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি তে ভর্তি হই। জানি এখানে আছে সেশন জট এর ঝামেলা। তবুও অনার্স তো পড়তে হবে। অনার্স প্রথম বর্ষের পরিক্ষা দিলাম ডিসেম্বর মাসে। ফল প্রকাশ করা হল জুলাই মাসে। দীর্ঘ ৭ মাস পর ফলাফল হাতে পেলাম। প্রথমে মনে হয়েছিল সোনার হরিণ। কিন্তু না, আমি যেরকম পরিক্ষা দিয়েছি, আমার ফলাফল তার ২% ধারে কাছেও না। বুঝতে পারলাম যে, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এর শিক্ষকরা ইদানিং " গাজা" খেতে শুরু করেছে। একমাত্র এইটার প্রভাবেই এইরকম ভাবে খাতায় নাম্বার দেয়া সম্ভব।

ADs by Techtunes ADs

কিন্তু আমার সেই ভাবনাটাও ভুল ছিল। পড়ে জানতে পারলাম, প্রাইভেট ভার্সিটির দালাল রা তাদের মোটা অঙ্কের ঘুষ খাইয়ে এই ধরনের কাজ করিয়েছে। যাতে আমাদের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এর উপর চরম অনিহা আসে এবং সবশেষে প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি গুলাতে ভর্তি হই। এই হল ভেতরের কথা।

এবার আসি তারা আশলেই কি প্রতারনা আমাদের সাথে করেছে?

গ্রেডিং পদ্ধতি সমন্ধে আমাদের কনরুপ অবগত না করেই, নিজেদের ইচ্ছা মত ফলাফল এর আগে গ্রেডিং পদ্ধতি চালু করেছে।

কলেজ ওয়াইজ ফলাফল গুলো দেখলেই বুঝতে পারবেন, প্রথম ১০ জন এর ফলাফল এক রকম। একইভাবে পরের ১০ জনের ফলাফল একইরকম।

অজানা নতুন গ্রেডিং পদ্ধতি এর করনে ৮০% ছাত্রছাত্রীরই ফলাফল এসেছে নট প্রোমটেড। যার ফলে ১ম বর্ষের ছাত্রদের আবার ১ম বর্ষে থাকতে হবে। আবার ৬-৭ বছর!!!!!!!!!!

এত ধৈর্য রাখি কই...

এইসব কারন ছাড়াও, আরও অনেক কারন এর জন্য গত ৪ দিন যাবত বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় এর ছাত্রছাত্রীরা তাদের নিজ নিজ এলাকাতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। যেটাকে আমি সাগতম জানাই। কিন্তু এতে তেমন কোন আশানুরুপ ফল আমরা এখন পাইনি।

কথায় আছে না "দশের লাঠি, একের বোঝা"

এবার সবাই একসাথে নামবো। আপনারও আশবেন।

যেখানে আন্দোলন অনুষ্ঠিত হবে

সময়ঃ আগামি কাল মঙ্গলবার সকাল ১০.০০ টায়।

ADs by Techtunes ADs

স্থানঃ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, গাজিপুর, ঢাকা।

বাংলাদেশের প্রায় সব জেলা থেকেই ছাত্রছাত্রীরা আশবে। আপনিও এর একজন অংশীদার হউন। আপনার কলেজকেও অংশগ্রহণ করান।

আমাদের দাবী গুলো

১। খাতা পুনরায় মুল্লায়ন করে অতি শীঘ্রই প্রকাশ করতে হবে।

২। গ্রেডিং পদ্ধতি বাতিল করতে হবে।

৩। প্রোমটেড হওায়ার জন্য কনো পয়েন্ট নিরধারণ করা যাবে না।

৪। সেশন জট নিরশনে বর্ষ পদ্ধতি বাদ দিয়ে সেমিস্টার পদ্ধতি চালু করতে হবে।

৫। সব পরিক্ষার ফলাফল ৩-৪ মাসের মধ্যে প্রকাশ করতে হবে।

অন্যায় অবিচার সহ্য করার দিন শেষ। আসুন সবাই একসাথে গর্জে উঠি ওই রক্তপিপাসুদের বিপরিতে।

সবাইকে ধন্যবাদ।

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি অনিক সরকার। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 5 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 16 টি টিউন ও 196 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

I m a graphics designer. I want to explore my experience with everyone & also wanna get their experience.


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Ami apnar shathe ekmot.

খুব সুন্ধর উদ্যেগ আপনাকে স্বাগতম জানাই।

আমি ২০০৫-০৬ শিক্ষাবষে ভতি হয়ে এ বছর masters দিলাম। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় মানেই ১৮ মাসে বছর।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যায়ের বোর্ডে যারা আছেন তাদেরকে অবশ্যই গাজা খোরই বলতে হবে, তানাহলে সেশন জট নিয়ে তাদের কোন মাথা ব্যাথা নাই মাঝ খান থেকে গ্রেড পদ্ধতি নিয়ে গাজা খোরি চিন্তা ভাবনা কেন?????

Level 0

welcome

১০০% সহমত…………

আমি এইবার ফাইনাল ইয়ারে। তোমাদের সাথে জাতীয় বিশ্ব বিদ্যালয় যেই ফাইজলামি করল এইবার তার জবাব সঠিক আন্দোলন করেই দিতে হবে। তোমাদের প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে তোমদের আন্দোলন দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত চালিয়ে যাবে। মুখের কথায় কখনও বিশ্বাস করে আন্দোলন থামিয়ে দিও না।

আমি এইবার ফাইনাল ইয়ারে। তোমাদের সাথে জাতীয় বিশ্ব বিদ্যালয় যেই ফাইজলামি করল এইবার তার জবাব সঠিক আন্দোলন করেই দিতে হবে। তোমাদের প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে তোমদের আন্দোলন দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত চালিয়ে যাবে। মুখের কথায় কখনও বিশ্বাস করে আন্দোলন থামিয়ে দিও না। বেস্ট অব লাক।

Level 0

জাতীয় ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের একমাত্র ইউনিভার্সিটি যেখানে শহর এবং গ্রামের দরিদ্র ও মধ্য বিত্ত পরিবারের ছেলেমেয়েরা পড়াশুনা করে। কিন্তু ইউনিভার্সিটির এমন খারাপ অবস্থা যে ঠিক মত পাস করে বের হওয়া যায় না।
যেমন আমার উদাহরনটা ধরি আমি ০২-০৩ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হই। কিন্তু Masters degree অর্জন করি 2011 সালে। বোঝেন অবস্থা। আর যদি ফেল করি তাহলে তো বারটা বাজবে। সবাই ভাল থাকবেন আশা করি।

এমাত্র খবরে সুনলাম আন্দোলনের মুখে দাবি মেনে নিল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।এই আন্দোলনের পর পরীক্ষার্থীদের মধ্যে যারা সর্বোচ্চ পাঁচ বিষয়ে ‘এফ’ গ্রেড পেয়েছে তাদের বিশেষ বিবেচনায় উত্তীর্ণ করার সিদ্ধান্ত নেয় প্রতিষ্ঠানটি। তবে, এসব পরীক্ষার্থীদের ‘এফ’ গ্রেড পাওয়া বিষয়গুলোতে পুনরায় পরীক্ষা দিয়ে পাস করতে হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আপনারা কেমন Student ? শিক্ষকদের বলেন গাজা খোর। যদি সামান্য লজ্জা থাকত আপনি এ পোষ্ট করতেন না। সারা বছর পডালেখা না করে পাশের স্বপ্ন দেখলে কি হবে। যদি ১.৭৫ ও না পান তবে পাশ করে করবেন কি ? শিক্ষিত বেকার হয়ে দেশের ক্ষতি করবেন।
ঠিক মত পড়ালিখা করেন । পাশ করার জন্য কান্না করতে হবে না। সবার আগে গুরু জনকে সম্মান করতে শিখুন ।

    @AB: আপনার কি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার দুর্ভাগ্য কখনো হয়েছে। যদি পড়তেন তখন বুঝতেন গাজাখোর বলা কতটা যৌক্তিক। আপনি অনার্স পড়ার সময় আপনার কোন ক্লাসমেট কি তার মাস্টার্স পাশের মিষ্টি খাইয়েছে? খাওয়ালে বুঝতেন যারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র/ছাত্রী তারা কতটা যন্ত্রনায় তাদের শিক্ষকদের সম্পর্কে এই ধরনের মন্ত্যব্য করে এবং এই মন্ত্যব্যে সমর্থন করে। ঠিক মত পড়ালিখা করার কথা বললেন, আপনার এই মন্তব্যের সাথে আমি সম্পূর্ণ একমত, তবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি নিয়ম এতদিন চালু ছিল তা হল প্রতি বছর একটি বিষয় পাশ করলেই তাকে প্রমোটেড করা হত। কিন্তু এইবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় যে নিয়ম পরিবর্তন করেছে তা আগে জানানো হয় নি। এই ব্যাপারটা যদি শিক্ষবর্ষের শুরুতে জানানো হত তাহলে নিশ্চই এই অবস্থা সুষ্টি হত না। গুরু জনকে সম্মান করতে শিখতে বলেছেন, আপনার কি মনে হয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা বেয়াদপ। অবশ্যই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা যথেষ্ট ভদ্র। আমাদের কিছু শিক্ষকদের ছাত্রদের কাছ থেকে শ্রদ্ধা আদায় করার ক্ষমতা নেই।

      @Roni:
      সর্বোচ্চ পাচটি কোর্সে ফেল করা ছাত্রদের দ্বিতীয় বর্ষে উত্তীর্ণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
      হা হা হা : what the Fu*K…. এই গুলা কি ?
      ধরুন আপনি দ্বিতীয় বর্ষে সব বিষয়ে পাশ করলেন But ১ম বষের কোন ১টি বিষয়ে আবার ফেল করলেন তখন আপনার কি হবে ? আপনি কি ৩য় বষে পড়বেন নাকি আবার ১ম বষ হতে শুরু করবেন??? ans me pls কারণ ১ বারের বেশি improved দেয়া যায় না।।।।।।।ans pls

        @AB: আগে ২৫% নাম্বার পেলে তাকে প্রমোটেড করা হত। কিন্তু এখন গ্রেডিং করার কারনে ৩৩% নাম্বার পেতে হবে প্রমোটেড হওয়ার জন্য। আর আমি এই গ্রেডিং পদ্ধতিকে সমর্থন করি। এবং যারা ফেল করে তারা প্রমোটেড হোক এটাও চাই না। কিন্তু আমি আমার কমেন্টে বলেছি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এই সিদ্ধান্ত গুলো শিক্ষাবর্ষের শুরুতে যদি জানাতো তাহলে এই অবস্থার সৃষ্টি হতো না। আর ইমপ্রুভ পদ্ধতি বন্ধ করা হোক তাও চাই, কিন্তু এত বছর যে পদ্ধতি চলে আসছে তা কি এত তারাতারি বন্ধ করা সম্ভব? তা অবশ্যই যতটা সম্ভব সবদিক ঠিক রেখে বন্ধ করতে হবে।

          @Roni:
          ১০০ মাঝে ৩৩ ও পাবেন না??? কি বলেন ভাই।।। কেমন Student? BCS এর Standard এ প্রশ্ন করে নি তো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ।।। মনে হয় BCS প্রশ্ন দিয়েছিল।।।
          আমি web site এ দেখলাম এইটা গত শিক্ষাবষ হতে চালু হয়েছে। আপনারা ২য় বার। আর আপনি কেমন Student বুঝলাম না নিজের পড়ালেখা কোন system এ চলছে তাই ইই জানেন না। হি হা হো।।।। হাসব নাকি কাদব বুঝতে পারছি না রে ভাই।।। হায় বাংলাদেশ….সর্বোচ্চ পাচটি কোর্সে ফেল করা ছাত্রদের দ্বিতীয় বর্ষে উত্তীর্ণ হ।।।য়।।।

          @Roni: @AB: ভাই আমি ২য় বর্ষের না ৪র্থ বর্ষের। আর আপনি তো এক প্যাচালই বারবার পারতাছেন, আমার কমেন্টে আমি বলছি সিস্টেম পাল্টানো অবশ্যই দরকার, তবে তা সবদিক ঠিক রেখে পাল্টাতে হবে। তার অর্থ এই না আমি বলেছি সবাইকে পাশ করাতে হবে। গ্রেডিং কবে চালু হইছে তা আমি বলি নাই, আমি বলছি পরীক্ষায় ফেল করলে যে প্রমোটেড করা হবে না তা আগে জানানো দরকার ছিল। আর আমি কেমন স্টুডেন্ট সেই আলোচনা আপনার সাথে নাই বা করলাম, আমি কেমন স্টুডেন্ট তা আমার কলেজের স্যাররা জানে এবং তারা আমাকে নিয়ে আপনাদের দোয়ায় আশাবাদী। আর একটা কথা আপনারা যারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের না তারা তো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এই দূর্দিনে হাসবেন জানা কথা এইটা এইখানে জিগানের কি আছে।

    @AB: apnar comment pore comment na kore parlam na.apni mone hoy private University te poren.NU te porle bujhte moja ki jinis.apnader yr ses hoy 11 or 12 month e ar amader year hoy 18 month e.
    4yrs er cours end korte time lage 7 yrs.khata dekha ses na hotei average marks dia result published kore dey.

    tara gaza khor na….gaza khorer baaaaap

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু খানকির পোরা নিজেকে এমন শিক্ষিত মনে করে মনে হয় সে যেন গোটা বিশ্বের শিক্ষা নীতি তৈরী করতে পারতো তা হরে মন ভরতো। আমরা হলাম প্রথম গ্রেডিং পদ্ধতির ছা্ত্র। পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি প্রায় শেষ। টেস্ট পরীক্ষা শেষে হঠাৎ শুনি আমাদের পরীক্ষা নাকি 2008-2009 সেশনের মতো হবেনা। হবে গ্রেডিং পদ্ধতি। সাথে নতুন বই। আগের বই আর কোন কাজে লাগলোনা। আগের প্রাইভেট? আগের পড়ার পিছনে সময়? আগের টাকা খরচ? গ্রেডিং সিস্টেম করবে সেটা অনার্স ফাস্ট ইয়ারে যখন চান্স পেয়েছি তখন করলেই তো হয়। যে সিলেবাস 1 বছরে শেষ করা যায়না সে সিলেবাস কি 2/3 মাসে শেষ করা কি এত সহজ। নাহিদ তো ভাল ওর দাদার চৌদ্দ গুষ্টি পারবে কিনা আপনাদের কাছে আমার প্রশ্ন রইলো।

    @Emrul islam:
    @Roni: ভাই আপনি আমার কাছে প্রশ্ন করেছেন আশা করি Emrul islam জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাএ নন।

    @Emrul islam আমি জানি না আপনার বয়স কত বা কেমন পরিবেশে !!!! আপনি পড়ালিখা করেছেন । আমি খুব ছোট বেলায় শিখেছিলাম গুরুজন পিতার সমান কোন ক্ষেএে পিতা মাতার চেয়ে ও বড় কারণ তারা পথ প্রদশক। আপনার বাবা / মা যদি কোন ভূল করে তার সাথে কি এই ভাষায়……. আমি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেউ না but নৈতিকতা হতে প্রতিবাদ জানালাম। আপনাকে ছোট করা বা অপমান করা আমার উদ্দেশ্য নয়। bai আপনার আবেগ / কষ্ট বুঝতে পারছি তাও প্রতিবাদ করা দরকার মনে করলাম।।।।।

      @AB: ভাই পথপ্রদর্শক যদি আমাদেরকে সুন্দর পথ রেখে কাটাভরা পথ দেখায় তাহলে আমাদের কি করার থাকতে পারে, আমাদের যায়গায় আপনি হলে কি করতেন। আর আপনার কমেন্টের উত্তরে আমি বলেছিলাম “আপনি অনার্স পড়ার সময় আপনার কোন ক্লাসমেট কি তার মাস্টার্স পাশের মিষ্টি খাইয়েছে?’ এই কথা থেকে আমাদের অসস্থা আপনার বুঝার কথা। আমি নিয়মিত ছাত্র। আমার এক বন্ধু, যে কোন একটা প্রইভেট ইউনিভার্সিটি থেকে পাশ করে এইবার ৩৪ তম বি.সি.এস প্রিলিতে পরীক্ষা দিয়েছে। আর আমি এখনও ৪র্থ বর্ষে পড়ি। আমার মতো যারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছে তাদের অবস্থা আশা করি আরো বিস্তারিত বলার প্রয়োজন নেই। আর বলি নাই আমাদের সব শিক্ষক খারাপ, নিতীনির্ধারক পর্যায়ের শিক্ষকদের কান্ডজ্ঞানহীন সিদ্ধান্তের কারনে তাদের সম্পর্কে এই ধরনের কথা বলা হচ্ছে।

    @Emrul islam: g্আমিও ভাই আপনার মত আমিও 2009-2010 শিক্ষা বর্ষের । এখন 3য় বর্ষে অথচ আমার অনেক সহপাঠী মানউন্নয়নেও ফেল করছে এখন কি সে 3য় বর্ষের পড়া পড়বে না 1ম বর্সের পড়া পড়বে কি আজব শিক্ষা প্রত্ষিাটন।

    আর টিউনার ভাইয়ের সাথে আমি সম্পূর্ন একমত আমি 2009-10 এ প্রথম গ্রের্ডীং এ পরিক্ষা দিই। ফিনান্স -এ আমি কমপক্ষে 85+ পাই সেখানে কিনা আমি পাই 75-80 সমমানের এ গ্রেড আবার হিবি-এ কম করে হলেও 75-80+ পাই সেখানে পাই 65-70 সমমানের বি + গ্রেড আর এই যদি ম্যাত পেপার গুলোর অবস্থা তবে থিউরি পেপার গুলোর অবস্থা একবার বুঝুন। তবে তারা গাজা না খেয়ে কি খায়।

ভাই AB আপনি যদি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাএ না হয়ে থাকেন তবে এখানে মন্তব্য না করাই ভালো। তারা যে কত কষ্ট পাবার পর এই কথা গুলো বলছে তা আপনার বোঝার ক্ষমতার বাইরে। এরকম পরিস্তিতিতে নৈতিকতা মন থেকে অনেক দূরে চলে যায় । এজ্বালা এক দিনের নয় পুরো বছরের

    @নাজমুল:
    ভাই আপনারা ১৮ মাস পড়া লেখা করতে পারেন but ১০০ এর মাঝে ৩৩ উঠাতে পারেন না….বুঝতে পারছি না আপনাদের সাথে তকবিতক করে লাভ কি ? বুঝবেন কি না?
    জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাএ না হলেও কি কিছুই বুঝি না তাই কি মনে করছেন ভাই। অন্তত এই টুকু বুঝি যারা ১০০ এ ৩৩ ও পায় না আবার পাশ করার জন্য আন্দলোন করে তাদের লজ্জা নাই ।

      Level 2

      @AB: vai, roni vi sothik janen na. pass
      mark asole 40% marks… ami 100%
      sure. r vaia, jekono bapar purapuri na
      jene dhalao vabe montobbo kora
      uchit noi.

        @SHAKIL QURAISHI: অনাকাঙ্খিত ভুলের জন্য আন্তরিক ভাবে দুঃখিত। আমি শুনেছিলাম গ্রেড নির্ধারিত হবে আগের পয়েন্ট অনুযায়ী অর্থাৎ আমাদের এস.এস.সি, বা এইচ.এস.সি তে যেইভাবে নির্ধারণ করা হয় সেইভাবে।

      @AB: ভাই AB আপনি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রাজুয়েট ?

আপনাদের সবার সাথে একটা বিষয় শেয়ার করি তা হল

1. জাবিতে পেপার 2 জন শিক্ষক মূল্যায়ন করেন এবং তাদের প্রদত্ত মার্ককে গড় করে চুরান্ত ফলাফল তৈরি করা হয়।

2. ধরুন আপনি হিসাব ব্যবস্থাপনা বিভাগের এক জন ছাত্র

সাধারনত ব্যবসায় গনীত পেপার মূল্যায়ন করা উচিত গনীত বিভাগের স্যারদের দ্বারা কিন্ত তা মূল্যায়ন করতে দেয় হয় হিবি বা ব্যবস্থাপনা বিভাগের স্যারদের। আমরা জানি যে বীজ গনীতের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান বিভিন্ন ভাবে সমাধান করা যায় ও বিভিন্ন যায়গায় রেজাল্ট করা যায় কিন্ত যেহেতু হিবি ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের স্যার দের ম্যাথ এ (সব স্যার না কিছু কিছু স্যার) ভাল জ্ঞান না থাকায় বইতে যে যায়গায় রেজাল্ট করেছে সেই রেজাল্ট এর সাথে না মিললে তা কেটে দেন এখন বলুন কি ভয়বহ অবস্থা।

3. সব চেয়ে বেশি ফেল করে অর্থনীতি বিষয়ে কারন সেই ম্যাথের মতই অর্থনীতির পেপার অর্থনীতির স্যার রা নাদেখে দেখে হিবি বা ব্যাবস্থাপনা বিভাগের স্যার রা তাই রেজাল্ট এর এই অবস্থা।

4. ফিনান্সের কথা আর নাই বা বাললাম। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়টি কলেজে ফিনান্স বিষয়টি আছে? বা কয়টি কলেজে ফিনান্স থেকে পাশ করা স্যার আছে বলেন তাহলে তাদের কি যোগ্যতা যে তারা ফিনান্স পেপার মূল্যায়ন করেন।

তাই ফলাফলের এই অবস্থা।

ঠিক বলেছেন নাজমুল ভাই আমি old first year কিন্তু পরীক্ষা হবে হবে করে এখনো হয় না। আরো যে কতদিন পর রুটিন বের হবে কোন ঠিক নাই।

এদের যে কোন উপায়ে উচিত শিক্ষা দেওয়া উচিত, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় মানে এখন ভীতির যায়গা…!!!!!!!!!!

Level 2

@AB: vai, roni vi sothik janen na. pass mark asole 40% marks… ami 100% sure. r vaia, jekono bapar purapuri na jene dhalao vabe montobbo kora uchit noi.

Level 0

২২ জুলাই, ২০১৩
প্রেস বিজ্ঞপ্তি
১৭-০৭-২০১৩ তারিখে প্রকাশিত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১১ সালের ১ম বর্ষ অনার্স পরীক্ষার ফলাফলে দেখা যায় যে, বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী অনার্স ২য় বর্ষে উত্তীর্ণ হতে ব্যর্থ হয়েছে। শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যত ও তাদের অভিভাবকদের কথা বিবেচনা করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পরীক্ষায় অবতীর্ণদের মধ্যে যারা সর্বোচ্চ ৫ (পাঁচ)টি কোর্সে শতকরা ৪০ নম্বরের নিচে অর্থাৎ F গ্রেড পেয়েছে তাদের বিশেষ বিবেচনায় ২য় বর্ষে প্রমোশন দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। তবে, পরীক্ষার রেগুলেশন অনুযায়ী এসব শিক্ষার্থীকে পরবর্তীতে F গ্রেড প্রাপ্ত কোর্সগুলোতে অবশ্যই উত্তীর্ণ হতে হবে। কর্তৃপক্ষ আশা করে, এরপর শিক্ষার্থীগণ নিয়মিত ক্লাস ও পড়াশুনায় মনোনিবেশ করে পরবর্তী পরীক্ষাসমূহে ভাল ফলাফল করার জন্য পূর্ব থেকেই প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করবে।

এদের ছাত্র বলতেও লজ্জা লাগে। ৬ বিষয় মিলে যার ১.৭৫ পাই না তারা ছাত্র নামের কলঙ্ক।

ami ekta onurodh korbo jara national university r student non tara eikhane kono comment koiren na..cuz apnara eder koshto ta bujhben na…..polapain to dhumaiya porse 1 year kintu dekha gelo exam hoise 18 month por….shobar e 6 ta subject shobai kom beshi valo khrap milaiya exam dilo..fail korbe na boltase jodi hoy 1 ki 2 ta subject a khrap hobe…jai hok 18 month pore exam dilo exam shesh hoilo eber pala hoilo result er 2-4 month choila gelo magar result ekhono publish hoitase na..onno dike private versity r ek frnd ask kore kire tor khobor ki togo result ki dise.. are na dst jani na kobe dibo…tor khobor ki.. koto number semister choltase togo?dst ami to 8 semister a next year a inshallah bba comlplte hoiya jaibo doya koris…mukh ektu baka hoiya gelo…hayre result tui kobe publish hobi 2nd year er to class start hoiya gelo…4-6-7 at last 8 month pore result dilo…khub excaited result dise pass kormu inshallah..result dekhte website a dhuklo..website a result deikha ha koira roilo 1ta 2 ta khrap hobar kotha shob khrap hoilo kemne? khata tao ki thik koira dekhse sir ra? shunsi national university 5 subject a fail kora student der nibe but shob fail subject a fail kora students der nibe na? ekhon apnarai bolen jara all subject a fail korse tara ki 14 month wait korbe 2nd year er jonno boisha thakbe??????????? 14 month keno bolsi cuz 2013 er december a 1st year exam and tar thik 8 month pore result………………………..

@AB আপনি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রাজুয়েট একটু বলবেন কি?

Level 2

@Roni: It’s ok, brother. SSC/HSC er grading er sathe hons. er grading er kono mil nai. vai, eibar asole main problem hoilo khata dekha nie chorom jaliati hoise… sekarone eto eto fail! apato dristite jekew bolbe je, jara 5 subject fail kore tara kiser student! kintu unara asole main fact na jene golabaji kortesen…

আসলে ঘটনা হইল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের দুর্দিনে প্রাইভেট ইউনিভার্সিটির কিছু পোলাপান মজা লুটতাছে।

    @Roni:তাতো করবেই।বাপের টাকা উড়াবে,মান্জা মাইরা বেড়াবে,মেয়েদের সাথে কুকর্ম করবে,সিসা টানবে,নেশা করবে,বাসায় বসে লুকিয়ে অশ্লীল ভিডিও দেখবে,লেখাপড়া করবে না আর আমাদের “ফকিন্নির পুত” বলবে।ভাব দেখাবে না বড়লোকের নষ্ট সন্তানরা!
    @বড়লোকের পোলাপান,এই “ফকিন্নির পুত” রা তোদের চেয়ে জনম জনম ভদ্র আর মেধাবী।তোরা দেশের বোঝা,বুঝলি বোঝা।তোদের মুখে প্রস্রাব করি।বেজন্মা কোথাকার।
    @”ফকিন্নির পুত”(!),সৃষ্টিকর্তা একদিন ঠিকি আপনাদের দিকে তাকাবে।আপনারা কষ্ট পেয়েন না প্লিজ।

আমি জানতাম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থা বেশ খারাপ,তাই বলে এতোওওওওওওওওটা?সত্যিই দুঃখ হয় আপনাদের জন্য,আপনাদের কপালটাই খারাপ।
নাহিদের বাচ্চা গাঁজা খেয়ে পড়ে থাকে আর নেশাগ্রস্থ অবস্থায় এক একটা গাঁজাখুরি সিদ্ধান্ত নেয়,আমরা ছাত্রদের ভবিষ্যত এভাবেই নষ্ট হবে,কি করে দেশের প্রতি ভালবাসা জন্মাবে!এজন্যই সবাই পরদেশে পাড়ি দিতে বাধ্য হয়।আমাদের কি কিছুই করার নাই?এই গাঁজাখোরদের আর দেশের গুরুত্বপূর্ণ কাছে দেখতে চাই না,চাই না,চাই না।

Evar Result Jemon khushi Temon Shajo kore dise. Jare mone chaise F dise.