শৈশবের খেলনা জাহাজ “পপ পপ বোট”

পপ পপ বোট একটা খেলনা জাহাজ যা বাষ্পীয় ইঞ্জিন দ্বারা চালিত হয়। যারা আশির দশক পর্যন্ত শৈশবকাল অতিক্রম করেছেন তারা নিশ্চয়ই পপ পপ বোট (pop pop boat) এর সংগে পরিচিত। এই লেখাটা লিখতে গিয়ে আমি নিজে নস্টালজিক হয়ে যাচ্ছি। কেননা আমিও শৈশবে এই জাহাজ নিয়ে অনেক খেলা করেছি। এটা সেই সময় অনেক জনপ্রিয় একটা খেলনা ছিল। অনেক অনেক বেশি আনন্দ দিতো শিশুদেরকে এই খেলনা।

আমি এখন বগুড়ার যে এলাকাতে থাকি এক সময় এর আশে পাশে ৪/৫ টি পুকুর এবং ডোবা ছিল। ঐ সব জায়গায় ঐ জাহাজগুলো ভাসানো হতো। জাহাজ গুলো পপ পপ শব্দ করে সামনের দিকে এগিয়ে যেতো। এই শব্দ থেকেই এটার নামকরণ করা হয়েছে পপ পপ বোট।

আন্তর্জাতিকভাবে এই নামেই বেশী পরিচিত এই খেলনাটি। তবে আরও কিছু নাম এটার আছে। যেমন পুত পুত বোট (putt-putt boat)। এই জাহাজগুলো যখন পানিতে ভাসানো হতো তখন লোকজন পুকুরপাড়ে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে সেটা দেখতো।

উপভোগ করতো সেই মনোমুগ্ধকর দৃশ্য। আজকাল এই খেলনা জাহাজগুলো আর দেখা যায় না। এটার কিছু কারণ হতে পারে এক সময় যে জায়গাগুলোতে পুকুর, ডোবা ছিল সেইগুলো এখন ভরাট করা হয়েছে। কালের পরিক্রমায় অনেক নতুন নতুন খেলনা যুক্ত হয়েছে।

পপ পপ বোট

পপ পপ বোটের ইতিহাস

ফ্রান্সের অধিবাসী Thomas Piot কে সাধারণত এই জাহাজ নির্মাণের কৃতিত্ব দেয়া হয়। ১৮৯১ সালে ইংল্যান্ডে তিনি পেটেন্টের জন্য আবেদন করেন। একটি ছোট বয়লার এবং দুটি exhaust নল ব্যবহার করে তিনি একটা খেলনা জাহাজ তৈরি করেছিলেন। ১৯৭৫ সালে Basil Harley একটা নিবন্ধ লিখেন যেখানে তিনি উল্লেখ করেন ১৮৮০ সাল থেকে ফরাসি জার্নালে একই ধরনের খেলনা নৌকা দেখা গেছে কিন্তু সেইগুলোর পেটেন্ট করা ছিল না। তাই বলা হয় এই ধরনের খেলনা জাহাজ Piot এর  পেটেন্ট করার অনেক বছর আগে থেকেই থাকতে পারে।

১ম  চিত্রঃ ১৮৯১ সালে Thomas Piot কর্তৃক পপ পপ ইঞ্জিন এর পেটেন্ট এর জন্য আবেদনকৃত ডিজাইন। ২য় চিত্রঃ ১৯২০ সালে William Purcell কর্তৃক কোয়েল টাইপ ইঞ্জিনের পেটেন্ট এর জন্য আবেদন।

১৯১৫ সালে একজন আমেরিকান Charles J. McHugh একটা পেটেন্ট এর জন্য আবেদন করেন যা diaphragm ইঞ্জিন দ্বারা চালিত। এটা ছিল Piot এর ডিজাইনের চাইতে উন্নত সংস্করণ। ১৯২০ সালে William Purcell পেটেন্ট এর জন্য একটা আবেদন করেন যেখানে কোয়েল টিউব ধরনের ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। এই ধরনের ইঞ্জিন অনেক বছর ধরে বাড়িতে তৈরি করা খেলনা জাহাজে ব্যবহার করা হতো। কেননা এটা তৈরি করা ছিল অনেক সহজ। বিশ দশকে যে সব পপ পপ জাহাজ তৈরি করা হতো সেখানে একটা exhaust নল ব্যবহার করা হতো। কিন্তু দ্বৈত exhaust নলের ব্যবহার ছিল অনেক সহজ। এই ডিজাইনটা অনেক বছর ধরেই চালু ছিল। সারা বিশ্বব্যাপী পপ পপ বোট এক সময় খুব জনপ্রিয় ছিল। বিশেষ করে ৪০ এবং ৫০ দশকে বেশ জনপ্রিয় ছিল এই খেলনাটি।

কিভাবে চলে পপ পপ বোট?

ভাসমান পপ পপ নৌকা

বাণিজ্যিক পপ পপ জাহাজ নির্মাণে টিনপ্লেট ব্যবহার করা হয়। জাহাজের একটা হাল থাকে এটা যে কোন উপাদান দিয়ে তৈরি করা যেতে পারে। পপ পপ জাহাজ সহজ তাপ ইঞ্জিন দ্বারা চালিত হয়। এটার ইঞ্জিন হল একটি ছোট বয়লার, যা exhaust টিউব এর সাথে সংযুক্ত থাকে। সাধারণত মোমবাতি বা সবজি তেল দিয়ে জাহাজের বার্নার জ্বলানো হয়।

যখন বয়লারে বার্নার দিয়ে তাপ প্রয়োগ করা হয় তখন বয়লারে অবস্থিত পানি ঝিলিক মারে এবং গরম হয়ে বাষ্প তৈরি করে। বিস্তৃত বাষ্প বয়লার থেকে বের হয়ে 'পপ' শব্দ তৈরি করে এবং exhaust টিউব থেকে  কিছু পানি ঠেলে দেয়। তাপশক্তি গতি শক্তিতে পরিণত হয় আর জাহাজটি সামনের দিকে চলতে শুরু করে।

উপসংহার

এক সময়ের তুমুল জনপ্রিয় খেলনা পপ “পপ বোট” নিয়ে এখনকার শিশুদেরকে খেলতে দেখা যায় না। এটার বেশ কিছু কারণ আছে যা আগেই উল্লেখ করেছি। তবে এই খেলনা সারা বিশ্ব থেকে একবারে হারিয়ে গেছে সেটা হলফ করে বলা যাবে না কেননা এখনও বড় বড় অনলাইন মার্কেটপ্লেস যেমন অ্যামাজান, ইবে থেকে এই খেলনা বিক্রি করা হয়।

Level 4

আমি আব্দুল্লাহ আল ফারুক। Digital Marketer, Self Employed, Bogura। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 5 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 34 টি টিউন ও 20 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 23 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস