ফেসবুক স্প্যাম অথবা স্প্যাম নোংরা ভিডিও টিউন যেভাবে ডিলিট করবেন

কয়েকমাস ধরে খেয়াল করছি স্প্যাম ভিডিও লিঙ্ক ও স্প্যাম লিঙ্ক অটো টিউন হয়ে যাওয়া খুব বেড়ে গেছে। আমার গতসপ্তাহে প্রায় ১৩টা বন্ধুর একই সমস্যা সমাধান করেছি। গতরাতে আমার খেয়াল হল যে আমি কত জনকে আর চিনি যারা ফেসবুক ব্যবহার করে, তার মধ্যে যদি ১৩ জনের যদি সমস্যাটা হয়, না জানি কত নাম না জানা বন্ধুরা এই সমস্যায় পড়েছে। তাই আমার এই প্রচেষ্টা নাম জানা বা না জানা বন্ধুদের একটু উপকার করার জন্য।

ফেসবুক স্প্যাম অথবা স্প্যাম নোংরা ভিডিও টিউন যেভাবে ডিলিট করবেন

যেহেতু এটা স্প্যাম, তাই স্প্যামাররা কয়েক ভাবে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আসতে পারে, তাই আমাদের এটা হাত থেকে রক্ষা পেতে স্প্যামাররা যে যে ভাবে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আসতে পারে সেই সেই প্রবেশ পথ গুলো আগে বন্ধ করতে হবে, পরে স্প্যামটাকে বন্ধ করে দিলেই হবে। জানি এই কথা গুলো খুব কঠিন শুনাচ্ছে, কঠিন কিছুই না, যা করতে হবে তাতো সেই আপনার পরিচিত ফেসবুক অ্যাকাউন্টেই করতে হবে, আর স্প্যাম-কিলার হিসাবে আপনার সাথেই আছি। চলুন একটা একটা করে স্প্যাম-কিলার পদক্ষেপ গ্রহন করি।

 

প্রথমে আপনাকে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের অ্যাপ্লিকেশান গুলো ডিলিট করতে হবে

স্প্যামারদের মূল ঘাটি হল ফেসবুক অ্যাপ্লিকেশান। এটা কিভাবে আসে সেটাও বলি, যেমন মনে করুন আপনি আপনার এক ফেসবুক বন্ধুর এই স্প্যাম ভিডিও দেখলে ও আরও দেখার জন্য ক্লিক করলেন, ক্লিক করার সাথে সাথেই সেই অ্যাপ্লিকেশানটা আপনার অ্যাকাউন্টেও যুক্ত হয়ে যাবে। তাই আপনাকে আগে সেই অ্যাপ্লিকেশান টা ডিলিট করতে হবে, না হলে স্ট্যাটাস ডিলিট করলেও আবার স্ট্যাটাস এসে যাবে। অ্যাপ্লিকেশানটা ডিলিট করতে ফেসবুক সেটিংস্‌-এ ক্লিক করুন, লগ-আউট বাটন যেখানে আছে সেখানে, হোমের পাশে। এখানে দেখুন অ্যাকাউন্ট সেটিংস আছে, অ্যাকাউন্ট সেটিংস্‌-এ ক্লিক করুন। নতুন পেজ আসলে বামে জেনারেলের নিচে অ্যাপসে ক্লিক করুন। এখানে X বাটনে ক্লিক করে করে যে অ্যাপ্লিকেশান গুলো আপনার অপ্রয়োজনীয় সেই গুলো রিমুভ করে দেন।

 

অপ্রয়োজনীয় ইভেন্ট গুলো ডিলিট করুন

স্প্যামারদের ২য় পছন্দ ইভেন্ট। ফেক ইভেন্ট বানিয়ে তারা খুব দ্রুত আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ঢুকে পড়তে পারে। সেই জন্য এখন আমাদের ইভেন্ট ডিলিট করতে হবে। প্রথমে ইভেন্টে যান, ফেসবুকের হোমে, বামের বুকমার্ক বাটন গুলো মধ্যে ইভেন্ট আছে, না থাকলে এখানেই অ্যাপস এ ক্লিক করে দেখুন ইভেন্ট আছে এটাতে ক্লিক করুন। যদি তাও না পান তাহলে এখানে ক্লিক করুন। দেখুন ওখানে জন্মদিন ছাড়া আর অপ্রয়োজনীয় ইভেন্টে ক্লিক করুন দেখুন ওখানে নতুন একটা পপ-আপ উইন্ডোজ আসবে, ঐ উইন্ডোজটির নিচে দেখুন, রিমুভ ইভেন্ট বলে একটা অপশন আছে ওটা তে ক্লিক করে করে আপনার অপ্রয়োজনীয় ইভেন্ট গুলো ডিলিট করে দিন।

 

অপ্রয়োজনীয় ফ্যান পেজ রিমুভ করুন

ফ্যান পেজেও বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশান লাগান যায়, তাই ফ্যান  পেজের মাধ্যমেও স্প্যাম আসতে পারে, তবে সব ফ্যান পেজই খারাপ না। এবারে আপনাকে আপনার লাইক করা অপ্রয়োজনীয় ফ্যান পেজ গুলো ডিলিট করতে হবে। ফেসবুক হোমের বামে একই ভাবে দেখুন পেজ বাটন আছে ওটাতে ক্লিক করুন। না পেলে এখানে ক্লিক করুন, এবং উপরে মাই পেজ-এ ক্লিক করুন। দেখুন এখানে আপনার লাইক করা পেজের তালিকা আছে। একটা একটা করে ওপেন করুন, আর বামের নিচে আনলাইক বাটনে ক্লিক করুন।

ব্রাউজারের এক্সটেন্সান বা এড-অন ডিলিট করুন

এদের মধ্যে আমি একজনের প্রোফাইলে খুব আজিব একটা সমস্যা দেখেছিলাম। সেখানে ফেসবুকে ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড দিলেই ইউটিউবের একটা ভিডিওতে অটো চলে যাচ্ছে। আবার নতুন একটা ট্যাবে ফেসবুক ওপেন করলাম ওপেন হচ্ছে কিন্তু লোড হওয়ার সাথে সাথেই ইউটিউব ভিডিও লোড হচ্ছে। এই ধরনের সমস্যার জন্য আপনাকে আপনার ব্রাউজারের অপ্রয়োজনীয় ইউটিউব এক্সটেন্সান বা এড-অন টি ডিলিট করতে হবে। গুগল ক্রমের জন্যঃ ক্রম সেটিং-এ ক্লিক করুন এড্রেস বারের ডানে, অপশনে ক্লিক করুন, এক্সটেন্সানে ক্লিক করুন। দেখুন এখানে ইউটিউব ভিডিও-এর অপ্রয়োজনীয় এক্সটেন্সান আছে, ওটার ডানে রিমুভ বাটন এ ক্লিক করুন। ফায়ারফক্সের জন্যঃ ফায়ারফক্সের টুলসে ক্লিক করুন দেখুন ওখানে এড-অনের একটা বাটন আছে ওটাতে ক্লিক করুন এবং এক্সটেন্সান সিলেক্ট করে ওখানে দেখুন অপ্রয়োজনীয় ইউটিউবের একটা এড-অন আছে, ওটা ডিলিট করে দিন।

 

স্প্যাম স্ট্যাটাসটা ডিলিট করুন

যেহেতু স্প্যাম স্ট্যাটাসটা স্ট্যাটাসে চলে গেছে তাই আমাদের শেষ কাজ হবে ঐ স্ট্যাটাসকে ডিলিট করা। আপনার ফেসবুকের হোমে বা টাইমলাইনে সেই বিখ্যাত স্ট্যাটাসটা খুজে বের করুন, যার জন্য আমাদের এতো ঝামেলা। স্ট্যাটাসের পাশে মাউস রাখলে একটা অপশন দিবে ওটাতে ক্লিক করে ডিলিট/ব্লক বাটনে ক্লিক করে ডিলিট ও ব্লক করে দিন।

 

আমার জানামতে ফেসবুক গ্রুপে কোন খারাপ কিছু বহন করে না। আপনি যদি চান তাহলে একই ভাবে অপ্রয়োজনীয় গ্রুপও লিভ করতে পারেন। গ্রুপ ওপেন করে দেখুন ডানে একটা সেটিং বাটন আছে ওটাতে ক্লিক করে লিভ গ্রুপে ক্লিক করে গ্রুপ থেকে লিভ করতে পারেন। ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক থেকে বাঁচার জন্য আপনার মোবাইল নাম্বার ভেরিফাই করে নিন, না জানা থাকলে এখানে ক্লিক করে পদ্ধতি দেখে নিতে পারেন। আর অবশ্যই ফেসবুকের ইমেইলে জায়গায় ২টা ইমেইল এড্রেস ব্যবহার করুন। কারন হ্যাকাররা কখনই ২য় ইমেইল এড্রেসটা ডিলিট করে না। তাই হ্যাক হয়ে যাওয়ার পরেও ২য় ইমেইল এড্রেস ভেরিফাই করে ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি ফিরে পাবেন।

যেহেতু ডিলিট করতে হবে তাই কাজটা খুব সাবধানে করুন, প্রয়োজনীয় কিছু যেন ডিলিট না হয়ে যায়।

Level 0

আমি মুন্সি জাহাঙ্গীর জিন্নাত। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 14 টি টিউন ও 146 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

সেই সর্বাপেক্ষা জ্ঞানী, যে নিজে শিখে ও অপরকে শেখাই...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

মাথা ব্যাথার জন্য মাথা কেটে ফেলার ব্যাবস্থা করলেন ? আপনি কি নিজে জানেন কিভাবে অ্যাকাউন্ট গুলো হ্যাক হছ্হে ? আগে জানার চেষ্টা করুন কিভাবে অ্যাকাউন্ট গুলো হ্যাক হচ্ছে তারপর সমাধান দিতে আসবেন ! :/

হিরো ভাই অনেক লিখছেন তাই অনেক ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য। যাঁহারা না জানে তাদের জন্য অনেক উপকার হবে বলে মনে হয়।

Level 0

brother nicher link tate gele kub easily apni oi spam ba nongra
video post teke baste parbe, jodin apni eate attackted hon,
http://www.hacktabs.com/video-yeahh-it-happens-on-live-television-how-to-stop-spreading-this-spam/

Level 0

thanks

Level 0

সুন্দর টিউন।তবে আরো কিছু উপায় আছে স্পাম থেকে বাচার।bitdefender antivirus এর ফেসবুক safe go মাধ্যমে নিরাপদে রাখা যায় ফেসবুক।

ami 30 ta chobi report kora delete korchi