সফটওয়্যার ছাড়াই নিখুঁত ভাবে ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন এবং ব্লার করুন

Level 4
২য় বর্ষ, গাইবান্ধা সরকারি কলেজ, গাইবান্ধা

হ্যালো টিউন পাঠক বন্ধুরা, কেমন আছেন আপনারা? আশা করি সৃষ্টিকর্তা সবাইকে ভালোই রেখেছেন বা রাখেন। তো যাই হোক না কেন সবার শুভ দিন কামনা করছি টিউনের শুরুতেই। তো বরাবরের মতোই আজও নিয়ে এসেছি একটা টিউন। থাম্বনেইল দেখে আপনারা হয়তো বুঝতে পারছেন যে এটা একটা টিপস এন্ড ট্রিকস জাতীয় টিউন। আপনাদের সমর্থন থাকলে এ ধরনের টিউন আগামিতে নিয়ে আসতেই থাকব ইনশাআল্লাহ।

বর্তমান এ যুগে ছবি তোলা একটা অতি পরিচিত বিষয়। এছাড়াও এ ছবি কত স্টাইলে তোলা যায় তার অভাব নেই। এ যুগের অধিকাংশ যুবক-যুবতী, কিশোর-কিশোরি ছবি তুলতে পছন্দ করে।

এছাড়াও এ যুগে এমন কোন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না যার দৈন্দিন জীবনের প্রয়োজনে ছবি তোলা লাগেনি। তো যাই হোক ছবি তোলা হলো ছোড় বড় সকলের জন্য একটা আবশ্যিক বিষয়।

ছবি তোলা হলে তার ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তনের প্রয়োজন পড়ে। অর্থাৎ আমরা সাধারণত যে ছবি গুলো তুলি এগুলোর ব্যাকগ্রাউন্ড অনেক সময় ভালো লাগেনা। আর কোন গুরুত্বপূর্ণ কাজের জন্য ছবি দিতে হলে তার ব্যাকগ্রাউন্ড তো এক কালার হওয়াই চাই। এটা বাধ্যতামূলক।

এছাড়াও আমাদের অনেকেরই আশে পাশের বাজে পরিবেশের কারণে ছবির ব্যাগগ্রাউন্ড ভালো হয় না এবং ইহা পরিবর্তনের প্রয়োজন পরে। এজন্য আমরা কম্পিউটারে বিভিন্ন থার্ড পার্টি অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করি।

এখন মোবাইল এ ও বিভিন্ন সফটওয়্যার আছে যা দ্বারা ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করা যায়। কিন্তু কেন জানি তা নিখুঁত হয় না। তাই আমাদের প্রয়োজন পরে নিখুঁত ভাবে ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তনের।

আমাদের এই প্রয়োজনীয়তা কে লক্ষ্য করে ইন্টারনেট জগৎ এ তৈরি হয়েছে বিভিন্ন ওয়েবসাইট। তারি একটা ওয়েব সাইট নিয়েই আজকের আমার এ টিউন। আমার আজকের এ টিউনের উদ্দেশ্য হচ্ছে কোন প্রকার থার্ড পার্টি অ্যাপ্লিকেশন ছাড়াই ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করা শেখা।

থার্ডপার্টি অ্যাপ বা সফটওয়্যার ছাড়াই ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করতে হলে যা করতে হবেঃ

১. প্রথমে আমাদের ফোনের ডাটা অন করতে হবে বা ওয়াইফাই এ কানেক্ট করতে হবে।

২.তারপর গুগল ওপেন করতে হবে।

৩.এরপর গুগলের সার্চবারে লিখতে হবে auto background remover।

৪.এরপর যে পেইজটি ওপেন হবে তাতে প্রথম লিংক এ ক্লিক করতে হবে।

৫.এরপর যে পেইজটি আসবে তাতে Upload Imaje এ ট্যাপ করে যে ছবিটার ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করতে হবে তা সিলেক্ট করে নিয়ে Done এ ক্লক করতে হবে। ঠিক যেমনটা আমি নিচে করেছি।

৬. এরপর ছবি প্রথমে নিচের মতো করে আপলোড হবে অরজিনাল ফটো হিসেবে এবং পরে অটোমেটিক ব্যাকগ্রাউন্ড রিমূভ হবে।

৭. এখন আপনি ছবিটিকে এখানেই ডাউনলোড করতে পারেন বা ইডিট করতে পারেন। ইডিট করতে হলে Edit এ চাপ দিবেন এবং তারপর প্রিভিউ এ চাপ দিবেন।

৮. এরপর যে পেইজটি আসবে এখান থেকে আপনি এক কালার ব্যাকগ্রাউন্ড যুক্ত করতে পারেন বা সিনারি ব্যাকগ্রাউন্ড যুক্ত করতে পারেন বা ব্লোর ব্যাকগ্রাউন্ড যুক্ত ছবি তৈরি করতে পারেন।

এখানে আপনি যেকোনো কালারের ব্যাকগ্রাউন্ড লাগাতে পারবেন।

৯. এরপর আপনার প্রয়োজন পরতে পারে ডাউনলোড করার। এজন্য আপনাকে ডাউনলোড অপশনে চাপ দিতে হবে এবং ডাউনলোড করে নিতে হবে।

এখানে যে ছবিটি ডাউনলোড হবে তা একটু কম রেজুলেশন এর হবে। কারণ ফ্রি এর চেয়ে বেশি কিছু আর পাও যায় না। হাই রেজুলেশন এ ডাউনলোড করা যায়। এজন্য HD Download এ চাপ দিতে হয়।

তারপর সাইন-আপ করতে হয়। সাইন আপ করতে গুগল অ্যাকাউন্ট বা ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করা যায়।

এরপর ক্রেডিট কিনতে হয়। এক্ষেত্রে ডলার খরচ করে Credits নিতে হয় যা ব্যায়বহুল এবং অসুবিধা জনক।

তারপরেও যদি আপনাদের ফ্রী অপশন টুকুই কাজে আসে তাহলে আমি এই টিউন করে ধন্য হবো। এইজন্যই এই টিউনটি আপনাদের জন্য করা।

তো বন্ধুরা আমার এই টিউনটি কেমন লাগলো তা  জানাতে পারেন টিউমেন্ট করে। ভালো লাগলে জোসস দিবেন, যাতে করে আমি সামনে আরো কিছু সুন্দর টিউন নিয়ে আসতে পারি। এতক্ষন আমার টিউন পড়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আসসালামু আলাইকুম।

Level 4

আমি মোঃ তানজিন প্রধান। ২য় বর্ষ, গাইবান্ধা সরকারি কলেজ, গাইবান্ধা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 মাস 2 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 56 টি টিউন ও 45 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 8 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 4 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো হারিয়ে যাই চিন্তার আসরে, কখনোবা ভালোবাসি শিখতে, কখনোবা ভালোবাসি শিখাতে, হয়তো চিন্তাগুলো একদিন হারিয়ে যাবে ব্যাস্ততার ভীরে। তারপর ব্যাস্ততার ঘোর নিয়েই একদিন চলে যাব কবরে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস